July 23, 2017, 8:54 pm | ২৩শে জুলাই, ২০১৭ ইং,রবিবার, রাত ৮:৫৪

ঢাকার দুই মেয়রকে লাল কার্ড!

ঢাকা জার্নাল:মশা নিধনে ব্যর্থতার দায়ে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের মেয়রকে লাল কার্ড দেখিয়েছেন ঢাকাবাসী। লেখক-শিল্পী-ছাত্র-শিক্ষক-সাংবাদিক ও নাগরিকদের ব্যানারে শনিবার (১৫ জুলাই) বিকাল ৫টায় রাজধানীর শাহবাগ জাতীয় জাদুঘরের সামনে ব্যতিক্রমী এই কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে।
আয়োজকরা বলেন, সম্প্রতি রাজধানীতে মশার উপদ্রব বেড়েছে। এডিস মশার আক্রমণে ‘চিকুনগুনিয়া’ নামে ভাইরাসঘটিত একটি রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। এতে নগরবাসীর মধ্যে দেখা দিয়েছে চিকুনগুনিয়া-আতঙ্ক। ঢাকা শহরের মশানিধনের দায়িত্ব দুই সিটি করপোরেশনের। কিন্তু, এ দায়িত্ব পালনে দুই মেয়রই ব্যর্থ হয়েছেন। দুই মেয়র ন্যূনতম দায়িত্ববোধ দেখাতে পারেননি। এ কারণেই ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হক এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকনকে এই ‘লাল কার্ড দেখানো’র এ কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।

কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন লেখক ও প্রকাশক রবিন আহসান, অ্যাক্টিভিস্ট খান আসাদুজ্জামান মাসুম, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির নেতা ফেরদৌস আহমেদ উজ্জ্বল, সাবেক ছাত্রনেতা শরিফুজ্জামান শরিফ, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির নেতা শহিদুল ইসলাম সবুজ, গণসংহতি আন্দোলনের কেন্দ্রীয় নেতা বাচ্চু ভূঁইয়া, সমাজকর্মী জাকিয়া শিশির, ইফতেখার আহমেদ বাবু, লীনা পারভীন, ড. মীজানুল হক, ব্লগার ও অনলাইন অ্যাক্টিভিস্ট আরিফ জেবতিক প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে খান আসাদুজ্জামান মাসুম বলেন, ‘(১৪ জুলাই শুক্রবার) সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা উত্তরের মেয়র আনিসুল হকের বক্তব্যে তার দেউলিয়াপনাই প্রকাশ পেয়েছে। তারা জনগণের মেয়র হতে পারেননি। নির্বাচনি প্রচারণার সময় অনেক বুলিই ঝেড়েছেন তারা। কেবল বুলি দিয়ে নয়, জনগণকে আশ্বস্ত করতে হবে কাজ দিয়ে।’

রবিন আহসান আরও বলেন, ‘স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলছেন চিকুনগুনিয়ার প্রাদুর্ভাবের জন্য সিটি করপোরেশন দায়ী। সিটি করপোরেশন একরকম জনগণের ঘাড়েই দায় চাপাতে চাইছে। বড়লোকদের উৎপাতের কারণে ঢাকা শহর ধ্বংস হচ্ছে।’

শরিফুজ্জানান শরিফ বলেন, ‘সংবাদ সম্মেলনের বক্তব্যে সমস্যা সমাধানের পথে না গিয়ে মেয়র সাহেব আক্রোশ ঝেড়েছেন।’

রবিন আহসান প্রশ্ন রেখে বলেন, ‘এই শহরে বৃষ্টি হলে রাজারবাগে নৌকা চলে, এই শহরে বৃষ্টি হলে মতিঝিলে নৌকা চলে। আপনারা কি লজ্জিত নন, মাননীয় মেয়রগণ?’

লীনা পারভীন বলেন, ‘এডিস মশা রাতের বেলা কামড়ায় না, কামড়ায় দিনের বেলা। শহরের রাস্তাঘাটের জলাবদ্ধতাই এসব মশার জন্ম দেয়। রাতের বেলায় মশারি টাঙিয়ে দিতে আমরা আপনাকে বলছি না, বলছি দিনের বেলার সমস্যাটা সমাধান করুন। দিনের বেলায় মশার হাত থেকে বাঁচার জন্য কি মশারি পরে ঘুরবো?’

জাকিয়া শিশির বলেন, “মশা মারার মুরোদ নাই, এমন মেয়রের কাম নাই’ এ কথা যেন রাস্তায় নেমে বলতে না হয়।”

আরিফ জেবতিক বলেন, ‘বিটিভির সেট আর ঢাকা শহরের বাস্তবতা এক নয়। জনসেবকের ভূমিকা পালনে ব্যর্থ হলে জনগণ আপনাদেরকে মাঠ থেকে তাড়াতে বাধ্য হবে।’

সমাপনী বক্তব্যে কর্মসূচির অন্যতম আয়োজক আকরামুল হক বলেন, ‘গতকাল (১৪ জুলাই শুক্রবার) সংবাদ সম্মেলনের বক্তব্যে মেয়র সাহেব দায়িত্ব পালন না করে মানুষের প্রতি উপহাস করেছেন। এখন আমরা লাল কার্ড দেখাচ্ছি, এরপর মানুষ দেবে গলাধাক্কা।’

কর্মসূচিতে ছাত্র-শিক্ষক-সাংবাদিকসহ বিভিন্ন স্তরের নাগরিকরা উপস্থিত ছিলেন।

ঢাকা জার্নাল, জুলাই ১৬।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *



এই পাতার আরো খবর -

জার্নাল