June 29, 2017, 1:27 am | ২৮শে জুন, ২০১৭ ইং,বৃহস্পতিবার, রাত ১:২৭

আঠারোতে পরিপূর্ণ নারী

hasin_intar20120425193131নারী ঋতুদর্শন হবার পর মুখ অনেকটা ভরাট হয়ে ওঠে, তলপেট পরিপুষ্ট হয়ে সন্তান ধারণের উপযুক্ত হয়ে থাকে। নিতম্বে মেদ জমতে শুরু করে। স্তন পুষ্ট হয়ে উঠতে থাকে। জননেন্দ্রিয়ের ভিতর ও বাইরের গঠন সর্ম্পূণ হতে থাকে, তার চারপাশে লোম গজাতে থাকে। যৌন পথের ভিতরের চামড়া মোটা হয়ে উঠে। আঠারোর মধ্যে একটি কিশোরী দৈর্ঘ্য প্রস্থে বেড়ে একজন পরিপূর্ণ নারীতে পরিণত হয়।

 


sharika2409bঢাকা জার্নাল:
 
ডিম্বানু ও শুক্রানুর সমন্বয়ে মাতৃগর্ভে নতুন ভ্রুণের সঞ্চার হয়। ভ্রুণের ছয় সপ্তাহ বয়সেই তার লিঙ্গ কি হবে সেটা বোঝা যায়। জন্মের পর ছেলেদের দৃষ্টিশক্তি আগে বাড়ে এবং মেয়েদের ক্ষেত্রে নাক-কান এই দুটি ইন্দ্রিয় ছেলেদের চেয়ে মেয়েদের আগে বিকশিত হয়।

প্রাথমিক স্তরে নারীশিশুর শ্রবণ শক্তি পুরুষ শিশুর চেয়ে বেশী উন্নত বলে অধিকাংশ নারীশিশুই আগে কথা বলতে শুরু করে। কিন্তু বৎসর তিনেক বয়সের মধ্যে নারীর এই অগ্রগতি আ থাকে না। যদিও ১০ বা ১২ বৎসর বয়স নাগাদ আবার কথা বলার ক্ষেত্রে মেয়েদের ক্ষমতা ফিরে আসে।

নারী শিশু যেমন পুরুষ শিশুর চেয়ে তাড়াতাড়ি মুখ চিনতে পারে, তেমনি বড় হলে তারা কথা ছাড়াই মানুষের মুখ ও চোখের ইশারাতেই সব কিন্তু বুঝে ফেলে। তারা খুব সহজেই অন্যের মুখের অবস্থা দেখেই অনেক কিছু বুঝতে পারে।

বয়ঃসন্ধিকালের আগে পর্যন্ত ছেলে ও মেয়েদের আকার, মাংসপেশীর গঠন, গলার স্বর ইত্যাদি প্রায় একই রকম থাকে। কিছু বয়ঃস্বন্ধিকাল থেকেই একটি নারী আলাদা হিসাবে পরিপূর্ণতা পেতে শুরু করে। মেয়েরা পনর বৎসর বয়সে আর ছেলেরা সতেরো বৎসর বয়সে শারীরিক পরিপূর্ণতা লাভ করে।


shokh1বয়ঃস্বন্ধিকালে মেয়েদের ডিম্বাশয় (ওভারী) থেকে প্রচুর পরিমাণ ইস্ট্রোজেন নামক একটি হরমোন নিঃসৃত হয়। যার ফলে মহিলাদের শরীরে নারীসুলভ কমনীয়তা, ত্বকের মসৃণতা, স্তনের বিকাশ ইত্যাদি হয়। পুরুষের শুক্রাশয় (টেস্টিস) থেকে টেস্টোস্টেরণ নামে একটি হরমোনের নিঃসৃত হবার ফলে পুরুষ সুলভ বলিষ্ঠ, ত্বকের রুক্ষতা এবং গালে, ঠোঁটের উপরে, থুতনিতে, বুকে, জনন, পেটে, পিটে এমন কি নিতম্বেও লোম দেখা দেয়।

নারী ঋতুদর্শন হবার পর মুখ অনেকটা ভরাট হয়ে ওঠে, তলপেট পরিপুষ্ট হয়ে সন্তান ধারণের উপযুক্ত হয়ে থাকে। নিতম্বে মেদ জমতে শুরু করে। স্তন পুষ্ট হয়ে উঠতে থাকে। জননেন্দ্রিয়ের ভিতর ও বাইরের গঠন সর্ম্পূণ হতে থাকে, তার চারপাশে লোম গজাতে থাকে। যৌন পথের ভিতরের চামড়া মোটা হয়ে উঠে। আঠারোর মধ্যে একটি কিশোরী দৈর্ঘ্য প্রস্থে বেড়ে একজন পরিপূর্ণ নারীতে পরিণত হয়।

 

 

 

 

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *



এই পাতার আরো খবর -

জার্নাল