July 25, 2017, 8:45 pm | ২৫শে জুলাই, ২০১৭ ইং,মঙ্গলবার, রাত ৮:৪৫

সুপারশপ বন্ধ রাখার ঘোষণা ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের

super_shopঢাকা জার্নাল: ‘নীতিমালায় বৈষম্য ও আইনের অপপ্রয়োগের মাধ্যমে হয়রানি’র প্রতিবাদে আগামীকাল রোববার (১৫ মে) সারা দেশে চেইন সুপার শপ বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছে সুপারমার্কেট ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন।

শনিবার (১৪ মে) বাংলাদেশ সুপারমার্কেট ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব মো. জাকির হোসেন স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এর ফলে রোববার আগোরা, মীনা বাজার, স্বপ্ন, প্রিন্স বাজার, ক্যারি ফ্যামিলি, শপ অ্যান্ড সেফ, আলমাস, আমানাসহ অন্যান্য সুপার মার্কেট বন্ধ থাকবে।

দোকান বন্ধের মাধ্যমে সরকারের শীর্ষ নীতিনির্ধারক ও ক্রেতাদের সামনে সংকটের গভীরতা তুলে ধরাই লক্ষ্য বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, হাজার হাজার কর্মী, কৃষক ও উৎপাদনকারীর ভাগ্য এই বিকাশমান খাতের সঙ্গে জড়িত। অথচ সুপারমার্কেট খাত একদিকে বৈষম্যমূলক নীতিমালার শিকার, অপরদিকে এই নীতির প্রয়োগে অনর্থক হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে। নিরাপদ খাদ্যের নামে ভ্রাম্যমাণ আদালত সুপারমার্কেটে নিয়মিত অভিযান চালাচ্ছে। কেবল ভ্রাম্যমাণ আদালত নয়, পুলিশ-র‌্যাব ও মিডিয়া নিয়ে বারবার অভিযান চালানো হচ্ছে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়েছে, অবৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে খাদ্য পরীক্ষা করে জরিমানাও করা হচ্ছে। যেন অভিযানে সুপারমার্কেটগুলোকেই টার্গেট করা হচ্ছে। এর মাধ্যমে ক্রেতাদের কাছে ভুল বার্তা দেওয়া হচ্ছে। যেন এই দোকানগুলোর উদ্দেশ্যই হচ্ছে ক্রেতাদের পচা বা ভেজাল পণ্য বিক্রি করা। যেসব কোম্পানি প্রচুর টাকা বিনিয়োগ করে তাদের অবকাঠামো ও ব্র্যান্ড তৈরি করেছে, তারা ইচ্ছাকৃতভাবে এমন কোনো কাজ করবে না, যার ফলে তারা ক্রেতাদের আস্থা হারাবে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সুপারমার্কেটে একেক সময় একেকটি কর্তৃপক্ষ মিডিয়াকে সঙ্গে নিয়ে বিশাল বহর নিয়ে অভিযানে আসে। অবস্থাদৃষ্টে মনে হয় খাদ্যের গুণগত মানের চেয়ে মিডিয়ায় প্রচারণাই তাদের প্রধান উদ্দেশ্য। এভাবে সুপারশপকে অনর্থক প্রতিপক্ষ বানানো খুবই দুঃখজনক। একটি বিকাশমান খাতকে অন্যায়ভাবে হয়রানি করা হচ্ছে।

ঢাকা জার্নাল, মে ১৪, ২০১৬।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *



এই পাতার আরো খবর -

জার্নাল