June 29, 2017, 4:41 am | ২৮শে জুন, ২০১৭ ইং,বৃহস্পতিবার, রাত ৪:৪১

রাজশাহীতে ৩০ শিবিরকর্মী আটক, এসআইকে পেটানোর কথা স্বীকার

image_35355_1ঢাকা জার্নাল: রাজশাহী মহানগরীর সপুরা এলাকার শিবিরের মেসগুলোতে অভিযান চালিয়ে ছাত্রশিবিরের ৩০ নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। এ অভিযানে একটি ককটেল, ১১টি চাইনিজ কুড়াল, শিবিরের গুরুত্বপূর্ণ কিছু কাগজপত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবারের হরতালকে কেন্দ্র করে নাশকতা ঠেকাতে মঙ্গলবার রাতভর এ অভিযান চালায় পুলিশ।

মহানগর পুলিশ জানায়, প্রথমে সপুরা এলাকার এক ছাত্রাবাস অভিযান চালিয়ে একটি ককটেল, ১১টি চাইনিজ কুড়াল, শিবিরের গুরুত্বপূর্ণ কিছু কাগজপত্র উদ্ধার করা হয়। শাহাবুদ্দিন বাপ্পি নামের এক শিবির কর্মীকে আটক করে র‌্যাব ও পুলিশ।

পুলিশের জানায়, ছাত্রাবাসটি শিবিরের আস্তানা ছিল। এখান থেকে শিবির গোপন কর্মকাণ্ডও পরিচালনা করতো। পরে ওই এলাকার আরো কয়েকটি ছাত্রাবাসে অভিযান চালায় র‌্যাব ও পুলিশ। এ সময় শিবির সন্দেহে আরও ২৯ জনকে আটক করা হয়।

মহানগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জিয়াউর রহমান জিয়া জানান, গত সোমবার মহানগরীর শালবাগান এলাকায় পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) জাহাঙ্গীর আলমের ওপর হামলার ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন বাপ্পী।

এদিকে কেন্দ্রীয় সভাপতিকে গ্রেফতার, রিমান্ডে নিয়ে নির্যাতনের প্রতিবাদ এবং তার মুক্তির দাবিতে শিবিরের ডাকা রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের ১৬ জেলায় বুধবারের সকাল-সন্ধ্যা হরতালে মহানগরীর কোথাও পিকেটিং করতে পারছে না শিবির।

রাজশাহীতে বুধবার সকাল ১১টা পর্যন্ত কোথাও নামতে পারেননি পিকেটাররা। তবে হরতালের সমর্থনে সকাল সাড়ে ৭টার দিকে রাজশাহী মহানগরীর তালাইমারী ও শাহ মখদুম কলেজের সামনে শিবির কর্মীরা রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে দেন। কিন্তু পুলিশ ঘটনাস্থলে যাবার আগেই তারা পালিয়ে যান।

তারপর আর কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। মহানগরীর গুরুত্বপূর্ণ সব স্থানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। চলছে র‌্যাব ও পুলিশের টহলও।

এদিকে, হরতালে বেলার বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে জনজীবন ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হয়ে আসছে। পিকেটিং না থাকায় রিকশা, অটোরিকশা, মোটরসাইকেল, সিএনজিসহ হালকা যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। খুলতে শুরু করেছে দোকানপাটও।

তবে রাজশাহীতে হরতালের কারণে দূরপাল্লার কোনো বাস ছাড়েনি। আন্তঃজেলা রুটের বাস চলাচলও বন্ধ রয়েছে। নাশকতার আশঙ্কায় বড় বড় ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এখনও খোলেনি। ব্যাংক ও বীমা প্রতিষ্ঠান খোলা থাকলেও সেখানে খুব একটা লেনদেন হচ্ছে না।

সকালে রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশন থেকে ঢাকাগামী আন্তঃনগর ট্রেন সিল্কসিটি এক্সপ্রেস ও খুলনাগামী কপোতাক্ষ এক্সপ্রেস ট্রেনসহ বিভিন্ন রুটের আন্তঃনগর এবং লোকাল মেইল ট্রেন নির্দিষ্ট সময়ে ছেড়ে গেছে। এছাড়া রাজশাহী থেকে অন্যান্য রুটের ট্রেনও চলাচল করছে।

ঢাকা জার্নাল, এপ্রিল ০৩, ২০১৩

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *



এই পাতার আরো খবর -

জার্নাল