June 29, 2017, 4:37 am | ২৮শে জুন, ২০১৭ ইং,বৃহস্পতিবার, রাত ৪:৩৭

ফ্যাশন প্যারেড করেছেন খালেদা জিয়া

28668_zia 2ঢাকা জার্নাল: ত্রাণ বিতরণের নামে ফ্যাশন প্যারেড করেছেন বিরোধী দলীয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া।

সোমবার সচিবালয়ে তথ্য অধিদফতরের সম্মেলন কক্ষে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলা হয়।

ব্রাক্ষ্মণবাড়িয়ায় টর্নেডোর আঘাতে ক্ষতিগ্রস্থ এলাকায় সরকারী ও বেসরকারী পর্যায়ে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমের অগ্রগতি তুলে ধরে সংবাদ সম্মেলন করেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য র আ ম উবায়দুল মুকতাদির চৌধুরী, প্রধান তথ্য কর্মকর্তা আমিনুল আসলাম।

ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেন, “দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্থ এলাকায় গিয়ে খালেদা জিয়া দায়িত্ব জ্ঞানহীন কথা বলেছেন। তার কথা সঙ্গে কাজের মিল নেই। তিনি ৩৫টি পরিবারকে সহায়তা করার কথা বলে মাত্র সাতটি পরিবারকে সহায়তা দিয়েছেন। আর বাকিগুলো দলীয় নেতা-কমীদের কাছ থেকে বুঝে নেওয়ার কথা বলেন।”

মন্ত্রী বলেন, “৩৫টি পরিবারকে সহযোগিতার কথা বললেও মাত্র সাতটি পরিবারকে সহায়তা দিয়েছেন। দুযোর্গে ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের দুর্দষার কথা না বলে রাজনৈতিক বক্তব্য দিয়েছেন।”

সংবাদ সম্মেলনে ব্রাক্ষ্মণবাড়িয়ার সংসদ সদস্য রআম উবায়দুল মুকতাদির চৌধুরী বলেন, “ত্রাণ বিতরণের নামে বিরোধী দলীয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ফ্যাশন প্যারেড করেছেন। ব্রাক্ষ্মণবাড়িয়ায় টর্নেডোর আঘাতে ক্ষতিগ্রস্থ এলাকায় গিয়ে দলীয় মহোৎসব পালন করেছেন।”

তিনি বলেন, এলাকার মানুষের দু:খ দুর্দষার কথা না ভেবে শোভাযাত্রা করছেন দলীয় নেতা-কর্মীদের নিয়ে। ছবি আর ফেস্টুনে ভরিয়ে ফেলেছিলেন এলাকা।”

উবায়দুল মুকতাদির বলেন, দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্থ এলাকায় ধানের শীষের শ্লোগান, ২০০ গাড়ির বহর, আর আগে পিছে আরো দেড় থেকে ২০০ মোটর সাইকেলের ভেঁপুর শব্দ। যেন এক নির্বাচনী মহোৎসব।”
সংবাদ সম্মেলনে মুক্তাদির আরও বলেন, “ফেস্টুনের টাকায় ক্ষতিগ্রস্থ ২০টি পরিবারের নতুন ঘর তৈরী হতো।”

ক্ষতিগ্রস্থ এলাকায় বিরোধী দলীয় নেত্রী যাননি উল্লেখ করে তিনি বলেন, “যে সব এলাকা ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে, সেসব এলাকায় না গিয়ে বেশি ক্ষতি হয়নি এমন এলাকায় সভা করেছেন।”

ঢাকা জার্নাল, এপ্রিল ১, ২০১৩

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *



এই পাতার আরো খবর -

জার্নাল