June 23, 2017, 7:54 pm | ২৩শে জুন, ২০১৭ ইং,শুক্রবার, সন্ধ্যা ৭:৫৪

চার বিচারপতির শপথ রোববার

High-Court-sm20130120092335ঢাকা জার্নাল:সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে নিয়োগ পাওয়া চার বিচারপতির শপথ রোববার।

শনিবার সন্ধ্যায় সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার এ কে এম শামসুল ইসলাম বাংলানিউজকে শপথের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

রোববার সকাল সাড়ে দশটায় সুপ্রিম কোর্টের জাজেস লাউঞ্জে প্রধান বিচারপতি মো. মোজাম্মেল হোসেন চার বিচারপতিকে শপথ পাঠ করাবেন।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার হাইকোর্ট বিভাগের চার বিচারপতিকে সংবিধানের ৯৫(১) অনুচ্ছেদে প্রদত্ত ক্ষমতাবলে আপিল বিভাগে নিয়োগ (শপথ গ্রহণের তারিখ হতে) দেন রাষ্ট্রপতি।

চার বিচারপতি হচ্ছেন- বিচারপতি মোহাম্মদ আনোয়ার উল হক, বিচারপতি ছিদ্দিকুর রহমান মিয়া, বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী ও বিচারপতি এ এইচ এম শামসুদ্দিন চৌধুরী।

এ নিয়ে আপিল বিভাগে মোট বিচারকের সংখ্যা দাঁড়ালো ১০-এ।

বিচারপতি মোহাম্মদ আনোয়ার উল হক:
১৯৪৭ সালের ৯ এপ্রিল জন্মগ্রহণ করেন মোহাম্মদ আনোয়ার উল হক। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইন বিভাগে এলএলবি, এলএলএম সম্পন্ন করে ১৯৭২ সালের ১৫ এপ্রিল মুন্সেফ (সহকারী জজ) হিসেবে যোগদান করেন। পরে জেলা ও দায়রা জজে পদোন্নতি পান। ২০০১ সালের ৩ জুলাই তিনি হাইকোর্টের অতিরিক্তি বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ পান। এরপর ২০০৩ সালের ৩ জুলাই স্থায়ী বিচারপতি হিসেবে শপথ নেন।

বিচারপতি ছিদ্দিকুর রহমান মিয়া:
ছিদ্দিকুর রহমান মিয়ার জন্ম ১৯৪৬ সালের ২ জুন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজনীতি বিজ্ঞান বিভাগ থেকে বিএ, এমএ, লোকপ্রশাসন বিভাগ থেকে এমএ এবং আইন বিভাগ থেকে এলএলবি ডিগ্রি অর্জন করেন। ১৯৭৬ সালের ১ জানুয়ারি মুন্সেফ হিসেবে যোগদান করেন এবং পরে জেলা ও দায়রা জজ হিসেবে পদোন্নতি পান। ২০০২ সালের ২৯ জুলাই তিনি হাইকোর্টের অতিরিক্ত বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ পান। ২০০৪ সালের ২৯ জুলাই স্থায়ী বিচারপতি হিসেবে শপথ নেন।

বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী:
হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী ১৯৫৬ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৮৩ সালের ৯ সেপ্টেম্বর হাইকোর্ট বিভাগে এবং ১৯৯৯ সালের ২৭ মে আপিল বিভাগের আইনজীবী হিসেবে অন্তর্ভুক্ত হন। ২০০১ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্টের অতিরিক্ত বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ পান। এরপর ২০০৯ সালের ২৫ মার্চ স্থায়ী বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ পান।

বিচারপতি এএইচএম শামসুদ্দিন চৌধুরী:
এএইচএম শামসুদ্দিন চৌধুরী ১৯৪৮ সালের ২ অক্টোবর জন্মগ্রহণ করেন। ব্যারিস্টার ডিগ্রি অর্জনের পর ১৯৭৮ সালে হাইকোর্ট বিভাগের আইনজীবী হিসেবে অর্ন্তভুক্ত হন। ২০০১ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি তিনি হাইকোর্টের অতিরিক্ত বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ পান। এরপর ২০০৯ সালের ২৫ মার্চ স্থায়ী বিচারপতি হিসেবে শপথ নেন।

ঢাকা জার্নাল, মার্চ ৩০, ২০১৩

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *



এই পাতার আরো খবর -

জার্নাল