June 23, 2017, 2:29 am | ২২শে জুন, ২০১৭ ইং,শুক্রবার, রাত ২:২৯

‘হেফাজতের হুমকি দক্ষতার সাথে মোকাবেলা করা হবে’

সংবাদ-প্রতিদিন-আওয়ামী-লীগের-নেতা-মোহাম্মদ-নাসিম-215x215ঢাকা জার্নাল: হেফাজতে ইসলামের ১৩ দফা দাবি ও দেশ অচল করে দেয়ার হবে হুমকির জবাবে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এবং সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, ‘হেফাজতের হুমকি দক্ষতার সঙ্গে মোকাবেলা করা হবে।’

নাসিম বলেন, ‘বিএনপি-জামায়াত এর আগে হেফাজতের কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে নৈরাজ্য সৃষ্টি করতে চেয়েছিল। কিন্তু সরকার তা দক্ষতার সঙ্গে মোকাবেলা করেছে। তারা আবার দেশ অচল করার হুমকি দিয়েছে। ১৪ দলের বিশ্বাস সরকার এবারও জণগনের আস্থা নিয়ে দক্ষতার সঙ্গে পরিস্থিতি মোকাবেলা করবে।’

সোমবার সকালে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমণ্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে কেন্দ্রীয় ১৪ দলের এক বৈঠকে তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় শান্তিপূর্ণভাবে নববর্ষ উদযাপনের পরিবেশ বজায় রাখায় ১৪ দলের পক্ষে থেকে সরকার ও দেশবাসীকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ অসাম্প্রদায়িক দেশ। এ দেশের মানুষ সাম্প্রদায়িকতায় বিশ্বাস করে না। সবাই মিলে একসাথে নববর্ষ উদযাপন তার আরেকটি প্রমাণ।’

আওয়ামী লীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফের বাসায় ককটেল নিক্ষেপের ঘটনায় নিন্দা জানিয়ে নাসিম বলেন, ‘তিনি যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবিতে সব সময় সোচ্চার থেকেছেন। এ কারণেই বার বার তার উপর হামলা হয়েছে। এর আগেও তার বাড়িতে হামলা চালানো হয়েছে।’

যুদ্ধাপরাধীদের বিচার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘সরকার তার নির্বাচনী ওয়াদা অনুয়ায়ী যুদ্ধাপরাধীদের বিচার শুরু করেছে। এ বিচার শুরু করার পর থেকেই স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি বিভিন্ন ষড়যন্ত্র শুরু করেছ। কিন্তু যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হবেই।’

নাসিম বলেন, ‘দেশে বর্তমানে যে হত্যা নৈরাজ্যে চলছে তার দায়ভার বিএনপি-জামায়াতকে নিতে হবে। দেশে কোনো নেতৃবৃন্দ প্রকাশ্যে হত্যা রক্তপাতের কথা বলেছেন- আগে এমনটা হয়নি। তবে এবার হয়েছে। একটি সাম্প্রাদয়িক গোষ্ঠী ভিন্ন ভিন্ন নামে দেশ অরাজকতার সৃষ্টি করছে। তবে সরকার তা প্রতিহিত করেছে এবং করবে।’

জনগণ বিরোধী দলের কর্মসূচি প্রত্যাখান করছে এমন দাবি করে তিনি বলেন, ‘জনগণ যে বিরোধী দলের এসব কর্মকাণ্ড প্রত্যাখান করেছে তার বড় প্রমাণ হলো পহেলা বৈশাখ। এবারের মতো এতো সুন্দরভাবে পহেলা বৈশাখ আগে পালিত হয়নি। জনগণ স্বস্ফূর্তভাবে উৎসব উৎযাপন করেছে।’

এর আগে দেশের সাম্প্রতিক রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে কেন্দ্রীয় ১৪ দলের নেতারা প্রায় দুই ঘণ্টাব্যাপী বৈঠক করেন। আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিমের সভাপদিত্বে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, খালিম মাহমুদ চৌধূরী, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক  ডা. বদিউজ্জামান ভুইয়া ডাবলু, ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন, জাসদের সাধারণ সম্পাদক শরীফ নুরুল আম্বিয়া, গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক নুরুর রহমান সেলিম প্রমুখ।

যুদ্ধাপরাধীদের বিচার পক্ষে জনমত তৈরি ও স্বাধীনতা বিরোধী শক্তির নৈরাজ্যের প্রতিবাদে বৈঠকে ১৪ দলের পক্ষে থেকে নতুন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে ২, ৩ ও ৪ মে ঢাকাসহ সারাদেশে বিক্ষোভ সমাবেশ এবং ১৮ এপ্রিল নারী নেত্রীদের সঙ্গে বৈঠক করবেন ১৪ দল নেতারা।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *



এই পাতার আরো খবর -

জার্নাল