June 29, 2017, 9:50 pm | ২৯শে জুন, ২০১৭ ইং,বৃহস্পতিবার, রাত ৯:৫০

ঈদের ছুটি ১০ দিন!

 

ঢাকা জার্নাল: এ বছর ১০ দিনের ঈদের ছুটির ফাঁদে পড়তে পারে দেশ। আগামী ২৩ জুন থেকে ১ জুলাই পর্যন্ত টানা এ সময়ের মধ্যে শবে কদরের একদিন, ঈদুল ফিতরের তিনদিন এবং ঈদের আগে ও পরে সাপ্তাহিক ছুটি তিন দিনসহ মোট আটদিন ছুটি থাকছে। সরকারি হিসাব অনুযায়ী ২৮ ও ২৯ জুন (বুধ ও বৃহস্পতিবার) দুইদিন সরকারি অফিস-আদালত খোলা থাকবে। তবে ওই দুইদিনের ছুটির ব্যবস্থা হলেই এবছর সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারিরা ঈদের ছুটি ভোগ করতে পারবেন টানা ১০দিন।
জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ও মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের নির্দেশ অনযায়ী বিদ্যমান সরকারি হিসাবে ২৮ মে থেকে শুরু হওয়া রোজার হিসাব অনুযায়ী আগামী ২২ জুন ২৬ রমজান। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সিদ্ধান্ত মোতাবেক ওইদিন (২২ জুন বৃহস্পতিবার)  দিবাগত রাতে পালিত হবে শবে কদর। শবে কদরের সরকারি ছুটি শুক্রবার (২৭ রমজান), ওইদিন সাপ্তাহিক ছুটি। পরের দিন শনিবারও ছুটি (২৮ রমজান)। রবিবার ২৯ রমজান।

এবছর রোজা ২৯টি হলে রবিবার শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা যাবে। যদি ২৫ জুন রবিবার ঈদুল ফিতরের চাঁদ দেখা যায়, তাহলে ঈদুল ফিতর পালিত হবে ২৬ জুন সোমবার। পরের দিন ২৭ জুন মঙ্গলবার ঈদের পরের দিন এমনিতেই ছুটি থাকে। সেক্ষেত্রে ২৮ ও ২৯ জুন বুধবার ও বৃহস্পতিবার এই দুইদিন ছুটি। আর রোজা ৩০টি হলে ঈদুলফিতর পালিত হবে ২৭ জুন মঙ্গলবার। তাহলে ২৮ জুন ঈদের পরের দিন বুধবার এমনিতেই ছুটি থাকবে। এক্ষেত্রে ২৯ জুন বৃহস্পতিবার একদিন অফিস খোলা থাকবে। এর পরদিন ৩০ জুন শুক্রবার ও ১ জুলাই শনিবার আরও দুই দিনের সাপ্তাহিক ছুটি রয়েছে। সেক্ষেত্রে ২ জুলাই রবিবারের আগে সরকারি অফিস ও আদালত পুরোদমে কাজ শুরু হওয়ার সম্ভাবনা কম। কারণ সামনে দুইদিনের সাপ্তাহিক ছুটি রেখে একদিনের জন্য অফিস করতে কর্মকর্তা-কর্মচারিরাও কর্মস্থলে আসতে চাইবেন না। সেক্ষেত্রে অনেকেই প্রত্যাশা করছেন, সরকার নির্বাহী আদেশে ২৯ জুন বৃহস্পতিবার ১ দিনের ছুটি দিলেও দিতে পারেন। আর তা যদি হয় তাহলে এ বছরের ঈদের ছুটি হবে টানা ১০ দিন।

সবিচালয়ে একাধিক কর্মকর্তা কর্মচারির সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, যদি নির্বাহী আদেশে ২৯ জুন বৃহস্পতিবার ছুটি নাও হয়, তাহলে অনেকেই আগেভাগে এই দুইদিনের ছুটি নেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। একাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারির সঙ্গে কথা বলে এমনটাই ইঙ্গিত পাওয়া গেছে।

তবে বিষয়টি আগামী সপ্তাহের শেষ দিকে সুরাহা হবে বলে বাংলা ট্রিবিউনকে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহামম্মদ শফিউল আলম। তিনি বলেন, ‘নির্বাহী আদেশের বিষয়টি আমার এখতিয়ারভূক্ত নয়। তবে আগামী সপ্তাহের শেষ দিকে বিষয়টি নিস্পত্তি হবে।’

এদিকে, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অপর একটি সূত্র জানায়, সংসদে চলছে বাজেট অধিবেশন। আগামী ৩০ জুনের মধ্যে বাজেট পাসের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। আগামী ৩০ জুন শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটি। আর এ কারণে সংসদের কার্যবিবরণীতে ২৯ জুন বাজেট পাস করার কথা বলা হয়েছে। সে কারণে ২৯ জুনের মধ্যেই ২০১৭-১৮ অর্থবছরের জাতীয় বাজেট পাস করতে হবে। পরদিন ১ জুলাই থেকে কার্যকর হবে এই বাজেট।

যদি ঈদ ২৭ জুন পালিত হয়, সেক্ষেত্রে ঈদ উপলক্ষে সংসদের অধিবেশন মুলতবি থাকবে সর্বোচ্চ ২৮ জুন পর্যন্ত। যেহেতু ২৯ জুন জাতীয় সংসদে বাজেট পাস হবে, সেক্ষেত্রে সংসদের অধিবশন ওই দিন চলবে নিশ্চিত। তাই এ বছর ২৯ জুন বৃহস্পতিবার নির্বাহী আদেশে ছুটি না দেওয়ার সম্ভাবনাই বেশি।

ঢাকা জার্নাল, জুন ০৮, ২০১৭।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *



এই পাতার আরো খবর -

জার্নাল