July 27, 2017, 8:51 am | ২৭শে জুলাই, ২০১৭ ইং,বৃহস্পতিবার, সকাল ৮:৫১

কর্মদিবসে দিনে গুলিস্তানে হকাররা নিষিদ্ধ

ঢাকা জার্নাল: আগামী রোববার থেকে সাপ্তাহিক কর্মদিবসে গুলিস্তান ও আশপাশের এলাকায় হকাররা ফুটপাত ও সড়কে তাঁদের পণ্য নিয়ে বসতে পারবেন না। তবে তাঁরা কর্মদিবসে সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার পর বসতে পারবেন।

আজ বুধবার দুপুর ১২টার দিকে নগর ভবনে হকার নেতাদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভা শেষে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র সাঈদ খোকন এ ঘোষণা দেন। তিনি বলেন, নগরবাসীর যাতায়াত সহজ ও নির্বিঘ্ন করতে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আজকের সভা ছিল হকার্স পুনর্বাসন ও হলিডে মার্কেট চালু প্রসঙ্গে। সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন ডিএসসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা খান মোহাম্মদ বিলাল, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব আবদুল ওহাব ভূইয়া, ডিএমপির ডিসি মফিজ আহমেদ, প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা কামরুল ইসলাম চৌধুরী, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা এম কে বখতিয়ার প্রমুখ।

মেয়র খোকন বলেন, আগামী রোববার থেকে দিনের বেলা সড়কে কেউ পণ্য নিয়ে বসলে, তাঁর বিরুদ্ধে সিটি করপোরেশনের ম্যাজিস্ট্রেট ঢাকা মহানগর পুলিশের সহায়তায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করবেন।

মেয়র বলেন, ‘যাঁরা তালিকাভুক্ত হকার, তাঁরা যদি পেশা পরিবর্তন করে চাকরি বা বিদেশ যেতে চান, তাঁরা আমাদের কাছে আবেদন করতে পারেন। সরকার বা প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করে আমরা ব্যবস্থা নেব।’

সভায় হকারদের আগে পুনর্বাসন করে পরে উচ্ছেদ বা অন্য সিদ্ধান্ত নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন হকার নেতারা।

 

ঢাকা দক্ষিণে পাঁচ থেকে ছয় লাখ হকার রয়েছেন উল্লেখ করে বাংলাদেশ জাতীয় হকার্স লীগের সভাপতি মোহাম্মদ নুরুল ইসলাম বলেন, ‘আমরাও চাই রাস্তায় কোনো হকার থাকবে না। কিন্তু রাস্তার বাইরে যে জায়গাটা আছে, সেখানে কিছু স্থান দিতে হবে। আগে হকার পুনর্বাসন করেন। এরপর উচ্ছেদ।’

সভায় লাইনম্যানদের প্রসঙ্গে মেয়র বলেন, লাইনম্যান নামধারীরা আসলেই চাঁদাবাজ। হকার নেতাদের তালিকা অনুযায়ী এ চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। হকারদের আইডি কার্ডের একটি প্রস্তাব এসেছে, সেটা চালু করা যায়।

বাংলাদেশ হকার্স ফেডারেশনের সভাপতি এম এ কাশেম লাইনম্যানদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরোধ জানান।

সপ্তাহে এক দিন হলিডে মার্কেট নির্ধারণ করা হয়েছে। সপ্তাহে এক দিন ব্যবসা দিয়ে তো সাত দিন চলবে না—এমন প্রশ্ন উঠলে মেয়র বলেন, শুক্রবারের পাশাপাশি শনিবারও হলিডে মার্কেট চালু করা যায়। এ ক্ষেত্রে শনিবার যেসব এলাকায় অফিস-আদালত ছুটি, সেসব এলাকায় হলিডে মার্কেট চালু করা যেতে পারে।

জাতীয় হকার্স ফেডারেশনের সভাপতি আরীফ চৌধুরী বলেন, হকারদের পুনর্বাসন করতে হবে। হলিডে মার্কেটে গেলে তাঁরা ফুটপাতে বসতে পারবেন কি না, এ নিয়ে হকারদের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দিয়েছে।

ঢাকা জার্নাল, জানুয়ারি ১১, ২০১৭।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *



এই পাতার আরো খবর -

জার্নাল