July 25, 2017, 8:44 pm | ২৫শে জুলাই, ২০১৭ ইং,মঙ্গলবার, রাত ৮:৪৪

নার্গিসকে কোপাতে আড়াইশ’ টাকায় চাপাতি কেনে বদরুল

badrulঢাকা জার্নাল : বুধবার সিলেটের অতিরিক্ত চিফ মহানগর ম্যাজিস্ট্রেট উম্মে সরাবান তহুরার আদালতে দেওয়া স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে হামলার পুরো ঘটনার বিবরণ দিয়েছে বদরুল।

বিকেল ৩ টা থেকে সাড়ে ৪ টা পর্যন্ত ওই আদালতে তার জবানবন্দি গ্রহণ করা হয়।

জবানবন্দিতে বদরুল জানিয়েছে, নার্গিসকে প্রেমের প্রস্তাব দিলেও তার কাছ থেকে কোনও সাড়া পায়নি সে। এভাবে অনেকবার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হওয়ায় তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে সে নগরীর আম্বরখানা থেকে আড়াইশ’ টাকা দিয়ে একটি চাপাতি কেনে।

বদরুল জানায়, ‘সোমবার এমসি কলেজের ক্যাম্পাসে গিয়েছিলাম নার্গিসের সঙ্গে শেষ বোঝাপড়া করতে। সঙ্গে চাপাতি নিয়ে গিয়েছিলাম। সেদিনও মুখোমুখি হতে চাইলে সে এড়িয়ে যায়। এরপর রাগ করে কোমরে থাকা চাপাতি দিয়ে বান্ধবীদের সামনেই নার্গিসকে কোপাতে থাকি।’

সে দাবি করেছে, ‘নার্গিস স্কুলে পড়ার সময় সে তাদের আউশা গ্রামের বাড়িতে লজিং থেকেছে। ওই সময় নার্গিসকে কিছুদিন পড়িয়েছে। তখনই সে তাকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়েছিল। কিন্তু, নার্গিস বিষয়টি বাড়িতে জানিয়ে দেয়। সে কারণে তাকে ওদের বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেওয়া হয়।’

সিলেটে কলেজ ছাত্রী খাদিজা বেগম নার্গিসকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে সাড়া না পাওয়ায় তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে আড়াইশ’ টাকা দিয়ে চাপাতি কেনে বদরুল। সেই চাপাতি দিয়েই সোমবার বিকালে তাকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে সে। বুধবার আদালতে দেওয়া স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে সে এ কথা জানিয়েছে। জবানবন্দিতে বদরুল ঘটনার সব দায় স্বীকার করেছে। এর আগে পুলিশের কাছে এসব কথা স্বীকার করে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) এই ছাত্রলীগ নেতা।

ঢাকা জার্নাল, অক্টোবর ০৫, ২০১৬।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *



এই পাতার আরো খবর -

জার্নাল