May 28, 2017, 6:18 pm | ২৮শে মে, ২০১৭ ইং,রবিবার, সন্ধ্যা ৬:১৮

মধ্যরাতে পাক আকাশে এফ-১৬, নিয়ন্ত্রণ রেখায় প্রস্তুত ভারতীয় সেনাও

pac-bimanঢাকা জার্নাল : মধ্যরাতে যুদ্ধের জিগির পাকিস্তানে? ইসলামাবাদের আকাশে উড়তে শুরু করেছে এফ-১৬ যুদ্ধবিমান? তেমনই দাবি করেছেন প্রখ্যাত পাক সাংবাদিক হামিদ মির। টুইটারে মির জানান,ইসলামাবাদের আকাশে উড়তে শুরু করেছে পাক বিমানবাহিনীর এফ-১৬। নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর ভারতীয় বাহিনীর অস্ত্রশস্ত্র মোতায়েন করতে শুরু করেছে বলে বৃহস্পতিবারই দাবি করে পাক সংবাদমাধ্যম। সেই রাতেই ইসলামাবাদের আকাশে এফ-১৬ উড়তে শুরু করাকে তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

হামিদ মিরের যে টুইট নিয়ে এত হইচই, তাতে তিনি লেখেন, ‘‘রাত ১০টা ২০ মিনিট থেকে ইসলামাবাদের আকাশে এফ-১৬ উড়তে শুরু করেছে।’’ যুদ্ধের আতঙ্কে ইসলামাবাদের কোনও কোনও এলাকায় সাধারণ মানুষকে রাস্তায় বেরিয়ে পড়েন বলেও শোনা যায়। ফলে স্বাভাবিক ভাবেই নানা মহলে চাঞ্চল্য ছড়ায়। কারণ ভারত-পাক টানটান উত্তেজনার মাঝে রাতে পাকিস্তানের রাজধানীর আকাশে যুদ্ধবিমান উড়তে শুরু করলে তা যে অশনি সঙ্কেতই বয়ে আনে,তা নিয়ে কারও সংশয় নেই। আতঙ্ক যাতে না ছড়ায়, তার জন্য ওই পাক সাংবাদিক পরে অবশ্য নিজেই সচেষ্ট হন। তিনি রাত ১২টা নাগাদ ফের টুইট করে জানান, আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। দেশকে রক্ষা করতে পাক বাহিনী যে সব সময় প্রস্তুত, সে কথাই বুঝিয়ে দিচ্ছে বিমান বাহিনী।

যে কোনও পরিস্থিতির মোকাবিলায় অবশ্য প্রস্তুত ভারতীয় বাহিনীও। নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবার বেশ কিছু অগ্রবর্তী চৌকিতে আর্টিলারি সরঞ্জাম মোতায়েন করা হয়েছে বলে বৃহস্পতিবারই খবর পাওয়া গিয়েছে। মজুত করা হয়েছে জ্বালানি তেলও। মঙ্গলবার থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী একের পর এক উচ্চপর্যায়ের বৈঠক করেছেন। তার মধ্যে একাধিক বৈঠকে জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল উপস্থিত ছিলেন। সেনাবাহিনী তাদের প্রস্তুতি সংক্রান্ত বেশ কয়েকটি প্রেজেন্টেশন প্রধানমন্ত্রীর সামনে তুলে ধরেছে বলেও জানা গিয়েছে।

পাক সংবাদমাধ্যমের একাংশ অবশ্য নিয়ন্ত্রণ রেখায় ভারতের প্রস্তুতিকে খুব বড় করে দেখাচ্ছে। বিবিসি উর্দু এবং জিও নিউজ বৃহস্পতিবার দাবি করেছে, ভারত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর বিপুল সামরিক প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে। সেখানে বফর্স কামান, রকেট এবং ব্রহ্মস ক্ষেপণাস্ত্র মোতায়েন করা হয়েছে বলেও পাক মিডিয়ার দাবি। তাদের আরও দাবি, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নিজেই এই সামরিক প্রস্তুতি দেখভাল করছেন। তবে এই খবর তারা কোন সূত্র থেকে পেয়েছে, পাক মিডিয়া তা জানাতে পারেনি।

নিয়ন্ত্রণ রেখায় শক্তিবৃদ্ধি করা হলেও, পাক অধিকৃত কাশ্মীরে বাহিনী ঢুকিয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা নেই বলেই নয়াদিল্লি জানাচ্ছে। উরিতে জঙ্গি হামলার পর এমনিতেই নজরদারি বেড়েছে নিয়ন্ত্রণ রেখায়। তার পরেও গত কয়েক দিনে বার বার জঙ্গি অনুপ্রবেশের চেষ্টা হয়েছে। তাই ভারতকে সেখানে প্রস্তুতি বাড়াতে হচ্ছে। ভারতীয় বাহিনীর এই তৎপরতাকে পাকিস্তান আক্রমণের তোড়জোড় ভাবলে ভুল হবে, বলছে ওয়াকিবহাল মহল।

এই পরিস্থিতিতেই বৃহস্পতিবার রাতে ইসলামাবাদের আকাশে এফ-১৬ যুদ্ধবিমান ওড়ার খবর মেলে। পাক প্রশাসনের সর্বোচ্চ মহল মধ্যরাতে ওয়ার রুম বৈঠক করেছে বলেও একটি অংশ দাবি করে। দু’তরফেই বিপুল প্রস্তুতির মাঝে পাকিস্তানের আকাশে এফ-১৬ উড়তে শুরু করা এবং পাক সরকারের ওয়ার রুম বৈঠকের খবর যদি সত্যি হয়, তা হলে পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগের যথেষ্ট কারণ রয়েছে। বলছেন বিশেষজ্ঞরা।

প্রতিবেদন আনন্দবাজার পত্রিকার।

ঢাকা জার্নাল, সেপ্টেম্বর, ২০১৬।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *



এই পাতার আরো খবর -

জার্নাল