March 24, 2017, 11:47 pm | ২৪শে মার্চ, ২০১৭ ইং,শুক্রবার, রাত ১১:৪৭

১০ হাজার হজযাত্রীর সরকারি কোটা পূরণ হচ্ছে না

 

 

Hajঢাকা জার্নাল: সরকারি ব্যবস্থাপনায় এবার ১০ হাজার হজযাত্রীর কোটা পুরণ হচ্ছে না। কারণ বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় প্রাক নিবন্ধন শেষ করার পর মূল নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু হলেও এখন পর্যন্ত সরকারি ব্যবস্থাপনায় মূল নিবন্ধন শুরু করা যায়নি।

শুধু তাই নয়, বুধবার (১৭ মার্চ) পর্যন্ত সরকারি ব্যবস্থায় প্রাক নিবন্ধন হয়েছে মাত্র ৩ জন হজযাত্রীর। এ অবস্থায় সরকারি কোটা পূরণ হওয়া সম্ভব নয় বলে জানিয়েছে ধর্মমন্ত্রণালয়ের একাধিক সূত্র।

সরকারি ব্যবস্থাপনায় কোটা পূরণের লক্ষে মঙ্গলবার (১৭ মে) ধর্ম মন্ত্রণালয়ের উপসচিব (হজ) মোহাম্মদ জাফর হোছাইন স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়, সরকারি ব্যবস্থাপনায় প্রাক নিবন্ধন কার্যক্রম চালু থাকবে আগামী ৩০ মে পর্যন্ত। প্রাক নিবন্ধন কার্যক্রম শেষ হলে শুরু হবে হজযাত্রীদের নিবন্ধন।

অন্যদিকে বেসরকারি ব্যবস্থাপায় হজযাত্রী নির্ধারিত ৪৮৩টি  লিড এজেন্সির মাধ্যমে  সোমবার (১৭ মে) থেকে শুরু করে হজ অফিস। তবে মঙ্গলবার (১৮ মে) থেকে অপারেশেন শুরুর প্রস্তুতি নিতে পারে তারা। এর আগে বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় প্রাক নিবন্ধন শুরু করা হয় গত ২৩ জানুয়ারি।  এই প্রাক নিবন্ধন শেষ হয় ২৮ ফেব্রুয়ারি।

তবে এসব বিষয়ে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব মোঃ আব্দুল জলিল বলেন, কোটা পূরণ না হলেও বেসরকারি ব্যবস্থাপনার কোনো হজযাত্রী এবার সরকারি কোটায় যেতে পারবেন না। সরকারি কোটা ছেড়ে দেওয়া হবে না বেসরকারি ববস্থানায়।

সচিব বলেন, কোটা পূরণ না হলে বেসরকারি ব্যবস্থাপনার অতিরিক্ত হজযাত্রী নেওয়া হবে। যদি বেসরকারি ব্যবস্থাপনা থেকে বেরিয়ে এসে সরকারি ব্যবস্থপনায় যেতে চায় সে ক্ষেত্রে।

২০১৫ সালে সরকারি কোটা পূরণ না হওয়ায় বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ছেড়ে দেওয়া হয় ২ হাজার ২০০ হজযাত্রী। তবে এবার সে সুযোগ থাকছে না। প্রয়োজনে কম সংখ্যক হজযাত্রী পাঠিয়ে সরকারি ব্যবস্থাপনায় হজযাত্রী পাঠানো হবে বলে জানায় মন্ত্রণালয়।

গত বছর সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৫ হাজার হজযাত্রীর মধ্যে মাত্র ২ হাজার ৮০০ পুরণ হলেও বাকি থাকে ২ হাজার ২০০ হজযাত্রীর কোটা। এই ২ হাজার ২০০ হজযাত্রীর কোটা ছেড়ে দেওয়া হয় বেসরকারি ব্যবস্থাপনায়। এছাড়া সৌদি সরকারের কাছে অতিরিক্ত ৫ হাজার হজযাত্রীর কোটা নিয়ে তা দেওয়া হয় বেসরকারি ব্যবস্থাপনায়।

কিন্তু এবার তা করা হবে না। সরকারি ব্যাবস্থাপনার কোনো কোটা বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ছেড়ে দেওয়া হবে না। বেসরকারি ব্যবস্থাপনায়  নিবন্ধন করা কোনো হজযাত্রী যদি হজে যেতে চান তাহলে নির্ধারিত এজেন্সির সঙ্গে সব হিসেবে নিকেশ মিটিয়ে নিয়ে সরকারি ব্যবস্থাপনার আওতায় যেতে হবে।

ঢাকা জার্নাল, মে ২১, ২০১৬

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *



এই পাতার আরো খবর -

জার্নাল