June 29, 2017, 4:37 am | ২৮শে জুন, ২০১৭ ইং,বৃহস্পতিবার, রাত ৪:৩৭

রাজনীতির নামে মানবাধিকার লঙ্ঘন করবেন না

Mizanurঢাকা জার্নাল: রাজনৈতিক অধিকার প্রয়োগ করতে গিয়ে মানবাধিকার লঙ্ঘন করবেন না বলেছেন বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান৷ “কোনো নেতা-নেত্রীর বক্তব্যে যদি মানবাধিকার লঙ্ঘনের ইঙ্গিত থাকে তাও দুঃখজনক৷”

সোমবার ভোর ৬টা থেকে প্রধান বিরোধী দল বিএনপির নেতৃত্বে ১৮ দলের টানা হরতাল শুরু হয়৷ তবে ৪৮ ঘন্টার হরতালে ১২ ঘণ্টা ছাড় দিয়ে ৩৬ ঘণ্টা করা হয়েছে৷ মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টায় এই হরতাল শেষ হবে৷

হরতালে ঢাকায় পিকেটারদের তেমন দেখা না গেলেও গাড়ি-ভাঙচুর, আগুন এবং ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে৷ আর এই ঘটনাগুলো ঘটেছে আকস্মিক এবং অনেকটা চোরাগোপ্তা স্টাইলে৷ এমনকি হরতালে বের না করা গ্যারেজের গাড়িতেও আগুন দেয়ার ঘটনা ঘটেছে৷ হরতালে নতুন আতঙ্ক হিসেবে এসেছে পেট্রোল বোমা৷ অন্তত ২টি পেট্রোল বোমা ছোড়ার ঘটনা ঘটেছে রাজধানীতে৷

পুলিশ হরতাল সমর্থকদের সঙ্গে ঢাকায় কোন সংঘর্ষে না জড়ালেও ঢাকার বাইরে কয়েকটি জায়গায় হরতাল সমর্থকদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের খবর পাওয়া গেছে৷ এদিকে ফেনীতে পিকেটারদের হামলায় আহত একজন ট্রাক চালক মারা গেছেন৷ সোমবার ভোর রাত ৩টার দিকে ময়দা বোঝাই ট্রাক নিয়ে চট্টগ্রাম থেকে আসার পথে ট্রাক চালক নূর মোহাম্মদ পিকেটারদের হামলায় গুরুতর আহত হন৷ সকাল ৮টার দিকে তিনি হাসপাতালে মারা যান৷

অন্যদিকে মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান বলেন, “হরতাল একটি রাজনৈতিক অধিকার৷ এই অধিকার প্রয়োগ করতে গিয়ে মানবাধিকার লঙ্ঘন করা যাবেনা৷ হামলা, ভাঙচুর, জীবন ও সম্পদের ক্ষতি কোনভাবেই রাজনৈতিক কাজ হিসেবে গ্রহণযোগ্য নয়৷ এর মাধ্যমে মানবাধিকার লঙ্ঘন করা হচ্ছে”৷

তিনি আরও বলেন, “কোনো নেত্রী যখন রাজনৈতিক আন্দোলনে জানমালের ক্ষতির জন্য প্রস্তুত থাকতে বলেন, তা খুবই দুঃখজনক৷ এই বক্তব্যের মাধ্যমেই মানবাধিকার লঙ্ঘনের ক্ষেত্র প্রস্তুত হয়৷”

ড. মিজান বলেন, রাজনৈতিক দলের নেতা-নেত্রীরা জাতির এই সংকট কালে দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিতে ব্যর্থ হচ্ছেন৷ তাদের সিদ্ধান্ত এবং সংলাপকে প্রত্যাখ্যান করার মাধ্যমেই তারা দেশকে সংঘাতের দিকে নিয়ে যাচ্ছেন৷ অথচ দেশকে সংঘাত থেকে বাঁচানোর দায়িত্ব তাদের৷ দেশের মানবাধিকার রক্ষায় দায়িত্ব তাদের৷

ড. মিজান আরও বলেন, এই সময়ে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদেরও চরম ধৈর্যের পরিচয় দিতে হবে৷ তারা যেন গুলি না ছুঁড়তে সর্বোচ্চ সংযমের পরিচয় দেন৷ কিন্তু মনে রাখতে হবে, জীবন রক্ষার অধিকার সবার৷ তাই পুলিশ আক্রান্ত হলে সে তার জীবন রক্ষায় যা প্রয়োজন তা করবে এটাই স্বাভাবিক৷ তাঁর মতে, টার্গেট করে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর ওপর পরিকল্পিত হামলা রাষ্ট্রের ওপর হামলার শামিল৷

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *



এই পাতার আরো খবর -

জার্নাল