প্রধানমন্ত্রীর বাজেট পরবর্তী নৈশভোজে যোগদান

জুলাই ১, ২০২৪

ঢাকা জার্নাল ডেস্ক: 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রোববার (৩০ জুন) বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি)তে অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী আয়োজিত বাজেট পরবর্তী নৈশভোজে যোগ দেন।

প্রধানমন্ত্রী অনুষ্ঠানস্থলে পৌঁছলে আবুল হাসান মাহমুদ আলী তাকে স্বাগত জানান। এসময় অর্থ প্রতিমন্ত্রী ওয়াসিকা আয়েশা খান উপস্থিত ছিলেন।

পরে শেখ হাসিনা অর্থমন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীকে নিয়ে বিভিন্ন টেবিল ঘুরে অতিথিদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন।

নৈশভোজে সংসদ উপনেতা, মন্ত্রিসভার সদস্য, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা, প্রতিমন্ত্রী, হুইপ ও সংসদ সদস্য, আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব, বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও দপ্তরের সিনিয়র সচিব ও সচিবদের পাশাপাশি ঊর্ধ্বতন সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তারাও এতে অংশ নেন।

জাতীয় সংসদে গতকাল অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতা বজায় রাখার এবং সরকারের ‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ রূপকল্প বাস্তবায়িত করার লক্ষ্যে গৃহীত পদক্ষেপ জোরদারের ওপর মূল মনোযোগ দিয়ে অর্থবছর-২৫-এর জন্য ৭,৯৭,০০০ কোটি টাকার জাতীয় বাজেট পাস করেছে।

বৈশ্বিক অস্থিরতা ও প্রতিকূলতা সত্ত্বেও আগামী অর্থবছরের বাজেটে জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৬.৭৫ শতাংশ এবং মূল্যস্ফীতি ৬.৫০ শতাংশের মধ্যে রাখার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী ১২,৪১,৭৫২ কোটি টাকার বাজেট বরাদ্দ চেয়ে বরাদ্দকরণ বিল, ২০২৪ উত্থাপন করেন যা কণ্ঠভোটে পাস হয়।

এর আগে শনিবার, সংসদ কিছু ছোটখাটো পরিবর্তনসহ অর্থ বিল, ২০২৪ পাস করে। অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী গত ৬ জুন জাতীয় সংসদে বাজেট পেশ করেন।

অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে গত ১৩ মার্চ প্রত্যয় স্কিমের প্রজ্ঞাপন জারির পর থেকে এর বিরুদ্ধে সরব বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশন। কিছু কর্মসূচি পালনের পর ৪ জুন অর্ধদিবস কর্মবিরতি পালন করেন শিক্ষকেরা ৷ এরপরও দাবির বিষয়ে কার্যকর কোনো পদক্ষেপ না দেখে ৪ জুন ঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী গত সপ্তাহে টানা তিনদিন অর্ধদিবস কর্মবিরতি পালন করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকেরা। এতদিন কর্মবিরতি পালিত হলেও বিশ্ববিদ্যালয়ের চলমান পরীক্ষাগুলো এর আওতার বাইরে ছিল। কিন্তু আজ থেকে যে সর্বাত্মক কর্মবিরতি শুরু হচ্ছে, সে সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাস-পরীক্ষাসহ দাপ্তরিক সব কার্যক্রম থেকে বিরত থাকবেন শিক্ষকেরা।