ইরানের প্রেসিডেন্ট ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিহত: ইরানি কর্মকর্তা

মে ২০, ২০২৪

হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসেইন আমির আব্দোল্লাহিয়ান। সোমবার (২০ মে) ইরানের এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা জানান, হেলিকপ্টারে থাকা প্রেসিডেন্ট, পররাষ্ট্রমন্ত্রীসহ সব যাত্রী নিহত হয়েছেন। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ খবর জানিয়েছে।

অনুসন্ধান ও উদ্ধারকারী দল পূর্ব আজারবাইজান প্রদেশের দুর্গম পাহাড়ি এলাকায় হেলিকপ্টারের ধ্বংসাবশেষ সনাক্ত করার করে। নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই কর্মকর্তা।

রয়টার্সকে ওই কর্মকর্তা বলেন, পার্বত্য অঞ্চলে কুয়াশাপূর্ণ খারাপ আবহাওয়ার কারণে হেলিকপ্টারটি বিধ্বস্ত হয়েছে।

অবশ্য এখন পর্যন্ত হেলিকপ্টারটি বিধ্বস্তের কারণ সম্পর্কে সরকারিভাবে কোনও তথ্য জানানো হয়নি।

ইরানের মেহর নিউজ এজেন্সিও তাদের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানিয়েছে, ইরানের প্রেসিডেন্ট ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে বহনকারী হেলিকপ্টারের সব যাত্রীই শহীদ হয়েছেন।

এর আগে এক ইরানি কর্মকর্তা রয়টার্সকে বলেছিলেন, রবিবারের (১৯ মে) দুর্ঘটনায় প্রেসিডেন্ট রাইসি এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসেইন আমিরাবদুল্লাহিয়ানকে বহনকারী হেলিকপ্টারটি সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে।

ইরানের রাষ্ট্রীয় টিভি জানিয়েছে, দুর্ঘটনাস্থল থেকে পাওয়া ছবি ও ভিডিওতে দেখা গেছে, হেলিকপ্টারটি একটি পাহাড়ের চূড়ায় আছড়ে পড়েছে।

দেশটির রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা আইআরএনএ জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি বেল ২১২ হেলিক্প্টারটিতে ভ্রমণ করছিলেন প্রেসিডেন্ট ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী। ওই হেলিকপ্টারটিই বিধ্বস্ত হয়েছে।

রবিবার  (১৯ মে) আজারবাইজানের সীমান্তবর্তী এলাকায় দুই দেশের যৌথভাবে নির্মিত একটি বাঁধ উদ্বোধন করতে যান ইরানের প্রেসিডেন্ট ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী। সেখানে আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভও ছিলেন। সেখান থেকে তিনটি হেলিকপ্টারের বহর নিয়ে ইরানের পূর্ব আজারবাইজান প্রদেশের রাজধানী তাবরিজে ফিরছিলেন তারা। একটিতে ছিলেন প্রেসিডেন্ট ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীসহ বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা। পথে পূর্ব আজারবাইজানের জোলফা এলাকার কাছে দুর্গম পাহাড়ে তাদেরকে বহনকারী হেলিকপ্টারটি বিধ্বস্ত হয়। বাকী দুইটি হেলিকপ্টার নিরাপদে ফেরত আসে।