June 29, 2017, 4:35 am | ২৮শে জুন, ২০১৭ ইং,বৃহস্পতিবার, রাত ৪:৩৫

বাণিজ্যমন্ত্রীর সমালোচনা, পদত্যাগ করার আহ্বান নাসিমের !

nasimঢাকা জার্নাল: বাণিজ্যমন্ত্রী জিএম কাদেরের কঠোর সমালোচনা করে তাকে মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করার আহবান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম।

শনিবার বেলা ১২টায় পাবলিক লাইব্রেরি মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতা পরিষদ আয়োজিত ‘চেতনায় মুক্তিযুদ্ধ-বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আহ্বান জানান।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, “যারা সরকারের গুরু দায়িত্ব পালন করছেন তাদের কথাবার্তা ঠিকমতো হতে হবে। আজকে জিএম কাদের সাহেব মন্ত্রী থাকা অবস্থায় কিভাবে বলেন শরিয়া অনুযায়ী সরকারের পতন হবে।”

জিএম কাদেরকে উদ্দেশ্য করে তিনি আরো বলেন, “আপনি মন্ত্রী সভা থেকে পদত্যাগ করে উল্টাপাল্টা কথা বলেন, মন্ত্রী থাকা অবস্থায় নয়।”

বিএনপির প্রসঙ্গে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, “যারা ফটিক ছড়ির মতো ঘটনা আরও ঘটাবে বলে হুমকি দেয় তাদের সঙ্গে কোনো আলোচনা হতে পারে না। তাদের মুখ দেখাও পাপ।”

আজকে কাদের সঙ্গে আলোচনা করবো-এমন প্রশ্ন রেখে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, “তারা ফটিক ছড়িতে মরা মানুষকেও পিটিয়েছে। ওদের সঙ্গে আলোচনা হবে না। আলোচনা যদি হয় তবে পার্লামেন্টে হবে। সেখানেই সব কিছুর ফায়সালা হবে।”

“ফ্রি স্টাইলে যে যার মতো করে দাবি দাওয়া তুলে ধরছে” মন্তব্য করে হেফাজতের ১৩ দফা প্রসঙ্গে নাসিম বলেন, ‘কেউ ইসলামের বরখেলাপ করছে কি না এটা দেখবে রাব্বুল আলামিন। ইসলামকে হেফাজত করার অধিকার কাউকে দেওয়া হয়নি। ইসলামকে ঠিকাদারি করার দায়িত্ব যদি কেউ নিতে চান তাহলে ইলেকশন করেন। জনগণ যদি ঠিকাদারির দায়িত্ব দেন তখন তা পালন করবেন।”

সরকারের নির্বাচনী ইশতেহার প্রসঙ্গে নাসিম বলেন, “সরকার জনগণকে দেওয়া অনেক ওয়াদাই পুরণ করতে সক্ষম হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিচার হয়েছে, যুদ্ধাপরাধীর বিচার চলছে। আশা করছি আগামি ৩০ এপ্রিল জাতীয় চার নেতা হত্যার বিচারে আমরা সঠিক একটি রায় পাব।”

যুদ্ধাপরাধীর বিচার প্রসঙ্গে নাসিম বলেন, “যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের কথা বলে ২০০৮ সালে ক্ষমতায় এসেছি। এই ঘাতকদের বিচার না করলে আমরা জনগণের কাছে আর ভোট চাইতে পারবো না।”

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি আলহাজ্ব মো. সিরাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন- স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী মজিবর রহমান ফকির, সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বি প্রমুখ।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *



এই পাতার আরো খবর -

জার্নাল