June 23, 2017, 7:46 pm | ২৩শে জুন, ২০১৭ ইং,শুক্রবার, সন্ধ্যা ৭:৪৬

বোস্টন হামলা সন্ত্রাসীদের কাজ : ওবামা

imagesঢাকা জার্নাল: বোস্টনের ভয়াবহ বোমা হামলাকে ‘সন্ত্রাসীদের কাজ’ বলে উল্লেখ করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা।

সোমবারের বোমা হামলার পর গত ২৪ ঘণ্টার মধ্যে মঙ্গলবার দেওয়া দ্বিতীয়বারের বিবৃতিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, “কারা সন্ত্রাসী হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র অবশ্যই তাদের খুঁজে বের করবে এবং বিচারের মুখোমুখি করবে।”

এফবিআইয়ের তদন্তের প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, “পরিষ্কারভাবে আমরা তদন্ত শুরু করেছি।” এ হামলার ব্যাপারে যে কাউকে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে তথ্য দেওয়ারও আহবান জানান তিনি।

ভয়াবহ এ হামলাকে ‘জঘণ্য ও কাপুরুষোচিত’ উল্লেখ করে ওবামা বলেন, “মার্কিন জনগণ সন্ত্রাসবাদকে প্রত্যাখ্যান করেছে।”

এফবিআই আপাতত কোনো হামলার আশঙ্কা নেই দাবি করলেও ওবামা বলেন, “যেকোনো সময় সন্ত্রাসীরা নিরীহ বেসামরিক নাগরিকদের লক্ষ্য করে বোমা হামলা চালাতে পারে।”

তিনি বলেন, “অনেক সময় লাগবে…তবে আমরা খুঁজে বের করবো কারা আমাদের নাগরিকদের ক্ষতি করেছে এবং আমরা তাদের বিচারের মুখোমুখি করবো।”

হামলায় হতাহতদের সাহায্যে এগিয়ে আসা ব্যক্তিদেরও প্রশংসা করেন ওবামা।

সোমবার বিশ্বের সবচেয়ে পুরনো এই ম্যারাথন প্রতিযোগিতায় মাত্র পনের সেকেন্ডের ব্যবধানে দুটি শক্তিশালী বোমা হামলায় তিন জন নিহত এবং দেড় শতাধিক লোক আহত হয়। এ হামলার তদন্ত করছে গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই। তবে, মঙ্গলবার এফবিআই’র পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আপাতত কোনো হামলার আশঙ্কা নেই।

পুলিশ জানায়, নিহতদের মধ্যে ৮ বছর বয়সী এক বালকও ছিল। আর আহতদের মধ্যে ১৭ জনের অবস্থা গুরুতর।

এর আগে, সোমবার দেওয়া এক বিবৃতিতে হামলাকারীদের বিচারের আওতায় আনার ঘোষণা দেন ওবামা।

ওবামা বলেন, “জানি না কারা এবং কেন এই হামলা করেছে। তবে যে বা যারা এই নারকীয় ঘটনার সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকুন না কেন আমরা তাদেরকে অবশ্যই খুঁজে বের করব। দায়ী ব্যক্তি বা দলকে কঠিন বিচারের মুখোমুখি হতে হবে।”

অবশ্য প্রেসিডেন্ট ওবামা এ হামলাকে তখন ‘সন্ত্রাসবাদী’ হামলা বলে উল্লেখ করেননি। তবে, হামলায় যে ধরনের বিস্ফোরক ব্যবহার করা হয়েছে তাতে এটাকে সন্ত্রাসী হামলা বলা যেতে পারে বলে জানান হোয়াইট হাউজের এক জ্যেষ্ঠ্য কর্মকর্তা।

ম্যারাথনে বিজয়ী ক্রস লাইন (বিজয় রেখা) ছোঁয়ার দুই ঘণ্টা আগে এই হামলা চালানো হয়। প্রথম বিস্ফোরণটি ঘটে স্থানীয় সময় দুপুর ২.৫০ ঘন্টায়। তার কিছুক্ষণ পরই আরেকটি বিস্ফোরণে পুরো এলাকা কেঁপে উঠে।

ঢাকা জার্নাল, এপ্রিল ১৬, ২০১৩

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *



এই পাতার আরো খবর -

জার্নাল