July 27, 2017, 8:51 am | ২৭শে জুলাই, ২০১৭ ইং,বৃহস্পতিবার, সকাল ৮:৫১

নাঈম আশরাফ ৭ দিনের রিমান্ডে

ঢাকা জার্নাল:রেইনট্রি হোটেলে দুই তরুণীকে ধর্ষণ মামলার আসামি নাঈম আশরাফের সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

আজ বৃহস্পতিবার ঢাকা মহানগর হাকিম এস এম মাসুদ জামান এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন। আসামিপক্ষের আইনজীবী  খায়রুল ইসলাম লিটন এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

বিকাল পৌনে তিনটার দিকে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা  ও  ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারের পরিদর্শক ইসমত আরা এমি আসামি নাঈম আশরাফকে আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করেন। আদালত এ সময় আসামির সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

প্রসঙ্গত,  বুধবার (১৭ মে) রাত পৌনে ৯টার দিকে মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার খিদিরপাড়া থেকে নাঈমকে গ্রেফতার করে পুলিশ সদর দফতরের গোয়েন্দা শাখা। এরপর রাত দেড়টার দিকে রাজধানীর মিন্টো রোডের গোয়েন্দা কার্যালয়ে নিয়ে আসা হয় তাকে।

গত ১১ মে এই মামলার পাঁচ আসামির মধ্যে সাফাত আহমেদ ও সাদমান সাকিফকে সিলেট থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপর ১৫ মে রাজধানীর নবাবপুর ও গুলশান থেকে সাফাতের গাড়িচালক বিল্লাল ও দেহরক্ষী রহমত আলী ওরফে আবুল কালাম আজাদকে গ্রেফতার করা হয়। আজ বৃহস্পতিবার (১৮ মে) সাফাত ও সাদমান আদালতে ১৬৪ ধারায় ঘটনায় দায় স্বীকার করে জবানবন্দি দেয়।

উল্লেখ্য, ধর্ষণের অভিযোগ এনে গত ৬ মে বনানী থানায় সাফাত আহমদ, নাঈম আশরাফসহ পাঁচজনকে আসামি করে একটি মামলা করেন দুই তরুণী। মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, ২৮ মার্চ পূর্বপরিচিত সাফাত আহমেদ তার জন্মদিনের দাওয়াত দেয় দুই তরুণীকে। এরপর তাদের বনানীর ‘কে’ ব্লকের ২৭ নম্বর সড়কের ৪৯ নম্বরে রেইনট্রি নামের হোটেলে নিয়ে যাওয়া হয়। হোটেলের একটি কক্ষে আটকে রেখে তাদের মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে ধর্ষণ করে সাফাত ও নাঈম। এ ঘটনা সাফাতের গাড়িচালক বিল্লালকে দিয়ে ভিডিও করানো হয়েছে বলেও এজাহারে উল্লেখ করা হয়। ধর্ষণ মামলার আসামিরা হলো- সাফাত আহমদ, নাঈম আশরাফ, সাদমান সাকিফ, সাফাতের গাড়িচালক বিল্লাল ও দেহরক্ষী রহমত আলী ওরফে আবুল কালাম আজাদ।

ঢাকা জার্নাল, মে ১৮, ২০১৭।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *



এই পাতার আরো খবর -

জার্নাল