June 29, 2017, 9:53 pm | ২৯শে জুন, ২০১৭ ইং,বৃহস্পতিবার, রাত ৯:৫৩

দাওয়ায় হাদিসে অংশ নিচ্ছেন সাড়ে ১৯ হাজার পরীক্ষার্থী

ঢাকা জার্নাল : স্বীকৃতির পর সারাদেশে কওমি মাদ্রাসার দাওয়ায় হাদিসের প্রথম পরীক্ষা শুরু হবে আগামী ১৫ মে। অভিন্ন প্রশ্নপত্রে সারাদেশের ৭৩৭টি মাদ্রাসা থেকে মোট ১৯ হাজার ৩৫১ জন শিক্ষার্থী এ পরীক্ষায় অংশ নেবেন।

সম্মিলিত কওমি মাদ্রাসা বোর্ডের (হাইয়াতুল উলইয়া লিল জামিয়াতিল কওমিয়া বাংলাদেশ) অধীনে দেশের ছয়টি মাদ্রাসা বোর্ডের শিক্ষার্থীরা পরীক্ষায় অংশ নেবেন। বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশ, গোপালগঞ্জের বেফাকুল মাদারিসিল কওমিয়া গওহরডাঙ্গা, চট্টগ্রামের আঞ্জুমানে ইত্তেহাদুল মাদারিসিল কওমিয়ার, সিলেটের আজাদ দ্বীনি এদারা বোর্ড, উত্তরবঙ্গের তানজিমুল মাদারিসিল কওমিয়া এবং জাতীয় দীনি মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের সমন্বয়ে গঠিত হয়েছে সম্মিলিত কওমি মাদ্রাসা বোর্ড।

গত ১৬ এপ্রিল চট্টগ্রামের দারুল উলুম হাটহাজারী মাদ্রাসায় দেশের সব কওমি মাদ্রাসা বোর্ডগুলোকে নিয়ে সম্মিলিত কওমি মাদ্রাসা বোর্ড গঠন করেন মান বাস্তবায়ন কমিটির চেয়ারম্যান শাহ আহমদ শফী।

সম্মিলিত কওমি মাদ্রাসা বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, দেশের ৭৩৭টি মাদ্রাসা থেকে ১৫ হাজার ৬৮৩ জন ছাত্র ও ৩ হাজার ৬৬৮ জন ছাত্রী দাওয়ায় হাদিস পরীক্ষায় অংশ নেবেন। মোট ২১৮টি কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে ছাত্রদের জন্য ১২৭টি এবং ছাত্রীদের জন্য ৯১টি কেন্দ্র। দশ বিষয়ে ১০০ নম্বর করে মোট এক হাজার নম্বরের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। পরীক্ষার ফি বাবদ শিক্ষার্থীদের ৪শ’ টাকা করে জমা দিতে হয়েছে। পরীক্ষা শেষে দেড় মাসের মধ্যে শিক্ষার্থীদের সনদ বিতরণেরও প্রস্তুত নিচ্ছে সম্মিলিত কওমি মাদ্রাসা বোর্ড।

এ প্রসঙ্গে সম্মিলিত কওমি মাদ্রাসা বোর্ডের সদস্য মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস বলেন, পরীক্ষার জন্য সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। সারাদেশ থেকে শিক্ষার্থীরা আগ্রহ নিয়ে পরীক্ষায় অংশ নেবেন। অভিন্ন প্রশ্নপত্রে একসঙ্গে সব বোর্ডের আওতাধীন মাদ্রাসাগুলোতে দাওয়ায়ে হাদিসের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

প্রসঙ্গত, গত ১১ এপ্রিল গণভবনে হেফাজতে ইসলামের আমির ও বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশের (বেফাক) সভাপতি শাহ আহমদ শফীসহ প্রায় ৩শ জন আলেমের উপস্থিতিতে আনুষ্ঠানিকভাবে কওমি মাদ্রাসার সনদের স্বীকৃতির ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর শিক্ষা মন্ত্রণালয় ১৩ এপ্রিল কওমি মাদ্রাসার দাওরায়ে হাদিসের সনদকে মাস্টার্স ইসলামিক স্টাডিজ এবং আরবি এর সমমান ঘোষণা করে গেজেট প্রকাশ করে। প্রকাশিত গেজেটে বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশের সভাপতি ও হেফাজতের আমির আহমদ শফীকে চেয়ারম্যান করে ১৫ সদস্যের একটি বাস্তবায়ন কমিটি ঘোষণা করা হয়।

ঢাকা জার্নাল, মে ১৪, ২০১৭।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *



এই পাতার আরো খবর -

জার্নাল