January 20, 2017, 5:34 am | ১৯শে জানুয়ারি, ২০১৭ ইং,শুক্রবার, ভোর ৫:৩৪

রুদ্ধশ্বাস সেই ১২ ঘণ্টা

Turkeyঢাকা জার্নাল: রাজধানীর গুলশানে হলি আর্টিসান রেস্টুরেন্টে শুকবার রাতে সন্ত্রাসীদের হামলা ও জিম্মি পরিস্থিতি সৃষ্টির প্রায় ১২ ঘণ্টা পর সঙ্কটের রক্তাক্ত অবসান ঘটে।

শনিবার সকাল ৭টা ৪০ মিনিট থেকে সাড়ে ৮টা পর্যন্ত কমান্ডো অভিযানে হামলাকারীদের ছয়জন নিহত হয়। উদ্ধার করা হয় ২০ জিম্মির লাশ।

সঙ্কটের শুরু এবং তার যেভাবে পরিসমাপ্তি ঘটে রুদ্ধশ্বাস সেই ১২ ঘণ্টার সংক্ষিপ্ত বর্ণনা এখানে তুলে ধরা হলো।

* শুক্রবার রাত পৌনে নয়টার দিকে ৭/৮ জন অস্ত্রধারী গুলশানের কূটনৈতিক এলাকার হলি আর্টিসান রেস্তোরাঁয় হামলা চালায়।

* রাত সাড়ে ১০টার দিকে সেখানে বড় ধরনের বিস্ফোরণ ও গোলাগুলির শব্দ পাওয়া যায়। পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) সহকারী কমিশনার রবিউল ইসলাম ও বনানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সালাউদ্দিন নিহত হন।

* রাত ১১টার দিকে সন্ত্রাসীদের বোমা হামলা ও গুলির মুখে পিছু হটে যায় পুলিশ। এরপর পুলিশ পাল্টা হামলার প্রস্তুতি নেয়। এ কারণে তারা বুলেট প্রুফ জ্যাকেট, হেলমেট ও আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়।

* ১১টা ১৪ মিনিটে র‌্যাবের মিডিয়া উইংয়ের মিজানুর রহমান জানান, ঢাকা পুলিশের অতিরিক্ত ডেপুটি কমিশনার আহাদ ও বানানী থানার ওসিসহ কয়েকজন পুলিশ আহত হয়।

* ১১টা ২০ মিনিটে র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ নিরাপত্তার কারণে টেলিভিশনে গোলাগুলির দৃশ্য সরাসরি না দেখানোর আহ্বান জানান।

* রাত পৌনে ১২টার দিকে যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্র ঢাকায় বসবাসরত তাদের নাগরিকদের সবধান করে দেয়।

* রাত সোয়া ১২টায় গোলাগুলিতে আহত বনানী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সালাউদ্দিন মারা যান।

* রাত সাড়ে ১২টায় পুলিশ অপরাধীদের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করে।

* রাত ১টা ১০ মিনিটে গোয়েন্দা পুলিশের সহকারী কমিশনার নিহত হন।

* রাত সাড়ে ১১ টায় গুলশানে রেস্তোরাঁয় হামলার দায়িত্ব স্বীকার করে আইএসআইএস।

* রাত ৩টা ৪০ মিনিটে আইন প্রয়োগকারী বাহিনীর সদস্যরা দুই জিম্মিকে উদ্ধার করার দাবি করে। এদের একজন বাংলাদেশি ও অপরজন আর্জেন্টাইন।

* ভোর ৪ টা ৪৫ মিনিটে সাংবাদিক ও জিম্মিদের আত্মীয়-স্বজনকে রেস্তোরাঁর কাছ থেকে আরও দূরে যেতে বলা হয়।

* ভোর ৫ টা ৫ মিনিটে জিম্মিদের মধ্যে সাতজন ইতালীয় বলে বাংলাদেশে নিযুক্ত ইতালির রাষ্ট্র্রদূতের বরাত দিয়ে সে দেশের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন।

* সকাল ৭টা ৪০ মিনিটে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা সশস্ত্র অভিযান শুরু করে। রেস্তোরাঁর আশপাশে সাঁজোয়া যান মোতায়েন করা হয়।

* সকাল ৭টা ৪৮ মিনিটে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা গুলি চালানো শুরু করে। এ সময় বেশ হৈ চৈ-এর শব্দ পাওয়া যায়।

* সকাল ৭টা ৫০ মিনিটে বিকট শব্দে বোমা বিষ্ফোরণের শব্দ শোনা যায়।

* সকাল ৮টা ১৫ মিনিটে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়নের একটি অ্যাম্বুলেন্স করে একজন আহতকে নিয়ে যেতে দেখা যায়।

* সকাল ৮টা ৩০ মিনিটে নিরপত্তা বাহিনী পরিস্থিতি পুরো নিয়ন্ত্রণে নেয়।

* সকাল ৮টা ৪৫ মিনিটে র‌্যাপিড অ্যাকশন বাহিনীর সদস্যরা আহত আরেকজনকে নিয়ে যায়।

* সকাল সোয়া ৯টায় সেনাবাহিনী প্রধান ও নৌবাহিনী প্রধান ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন।

* বেলা ১১ টা ৫০ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ৬ বন্দুকধারী নিহত ও ১৩ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে।

ঢাকা জার্নাল, জুলাই ০২,২০১৬।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *



এই পাতার আরো খবর -

জার্নাল