July 23, 2017, 8:56 pm | ২৩শে জুলাই, ২০১৭ ইং,রবিবার, রাত ৮:৫৬

ব্লগারদের বিরুদ্ধে তথ্য আইনের ব্যবহার হবে

Blogger-arrested-bg20130402034748ঢাকা জার্নাল: গোয়েন্দা পুলিশ বলছে, লেখালেখির মাধ্যমে ‘ইসলামসহ অন্যান্য ধর্মের প্রবর্তকদের বিতর্কিতভাবে উপস্থাপন’ করার অভিযোগে তারা ব্লগার আসিফ মহিউদ্দীনকে গ্রেপ্তার করেছে।

এছাড়া জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আরো দুইজনকে আটক করলেও পরে তাদের ছেড়ে দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে গোয়েন্দা পুলিশ।

এর আগে গোয়েন্দারা মঙ্গলবার আরো তিনজন ব্লগারকে গ্রেপ্তার করে।

রাজধানীর ইস্কাটন থেকে সকালে ব্লগার আসিফ মহিউদ্দীনকে প্রথমে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের কার্যালয়ে নেয়া হয়। পরে তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

গোয়েন্দা পুলিশের উপ-কমিশনার মাসুদুর রহমান বলেছেন, আসিফ মহিউদ্দীনকে লেখালেখির মাধ্যমে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেয়ার অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ”সে প্রকৃতিবাদে বিশ্বাসী এবং ইন্টারনেটের বিভিন্ন মাধ্যমে তার লেখালেখিতে ব্যক্তিগত মতামতের মাধ্যমে মূলত ইসলামসহ অন্যান্য ধর্মের প্রবর্তকদের বিতর্কিতভাবে উপস্থাপন করত। আর এর মাধ্যমে মানুষের ধর্মীয় অনুভূতিতে সে আঘাত হেনেছে, এ কারণেই আমরা তাকে গ্রেপ্তার করেছি।”

প্রকৃতিবাদে বিশ্বাসী হওয়া বা নাস্তিক হওয়া বাংলাদেশের আইনে অপরাধ কিনা এই প্রশ্নের জবাবে মাসুদুর রহমান বলেন, ”বাংলাদেশের দন্ডবিধি এবং তথ্য অধিকার আইনে কেউ নাস্তিক থাকতে পারেন, কিন্তু তার লেখালেখির মাধ্যমে অন্যের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত অপরাধের পর্যায়ে পড়ে।”

গোয়েন্দারা ব্লগারদের প্রথম তিনজনকে আটক করে মঙ্গলবার।

গ্রেফতারের পর নিম্ন আদালত আদেশে এদের সাত দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়েছে।

এই ব্লগারদের এমন এক সময়ে গ্রেফতার করা হলো যখন ‘নাস্তিক ব্লগারদের’ বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়ে হেফাজতে ইসলাম ঢাকা অভিমুখে আগামী শনিবার লং মার্চ কর্মসূচি ঘোষণা করেছে।

অন্যদিকে, ব্লগার ও অনলাইন অ্যাক্টিভিষ্টরা এসব গ্রেপ্তারের ঘটনায় সরকারের নিন্দা জানিয়েছেন।

জাতীয় স্বার্থে অনলাইন অ্যাক্টিভিষ্ট-এর সমন্বয়ক পারভেজ আলম মনে করেন, এ ঘটনার মাধ্যমে সরকার হেফাজতে ইসলামের দাবির কাছে কার্যত নতিস্বীকার করল।

তিনি বলেন, ”এ ঘটনার মাধ্যমে সরকার হেফাজতে ইসলামে অন্যায্য ও বাংলাদেশের প্রচলিত আইনের পরিপন্থী কিছু দাবির কাছে আপোষ করলো। একই সাথে ব্লগাররা গণমানুষের প্রতিনিধিত্ব করে এমন একটি শক্তি হিসেবে যে সম্ভাবনা দেখাচ্ছিল সরকার তা নস্যাৎ করে দিচ্ছে।”

গণজাগরণ মঞ্চ বন্ধ করে দেয়াসহ যে ১০ জন ‘নাস্তিক’ ব্লগারের ফাঁসির দাবি তোলে হেফাজতে ইসলাম, তাদের তালিকায় আসিফ মহিউদ্দীনের নাম ছিল।

এর আগে ব্লগে লেখালেখিকে কেন্দ্র করে গত ১৪ই জানুয়ারি রাতে উত্তরায় তার ওপর হামলা হয়।

ছুরিকাঘাতের গুরুতর জখম নিয়ে তিনি বেশ কিছুদিন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

মি. মহিউদ্দীনকে হত্যাচেষ্টার মামলায় গোয়েন্দা পুলিশ গত ১লা এপ্রিল চারজন যুবককে গ্রেপ্তার করে।

অন্যদিকে, গ্রেপ্তারকৃত চার ব্লগারের মুক্তির দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলা এবং টিএসসিতে ছাত্র, শিক্ষক, বুদ্ধিজীবি এবং রাজনীতিবিদদের কয়েকটি সংগঠন পৃথকভাবে মানব-বন্ধন এবং সংহতি সমাবেশ করেছে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *



এই পাতার আরো খবর -

জার্নাল