June 27, 2017, 9:24 am | ২৭শে জুন, ২০১৭ ইং,মঙ্গলবার, সকাল ৯:২৪

সাঈদীর ময়না পাখির খোঁজে

images (3)ঢাকা জার্নাল: যুদ্ধাপরাধের দায়ে মৃত্যুদন্ডের শাস্তিপ্রাপ্ত জামাত নেতা মাওলানা দেলোয়ার হোসেন সাঈদীর কথিত ময়না পাখি নামক বান্ধবীকে খুঁজে বের করার চেষ্টা করছেন ব্লগাররা। কথিত এই ময়নাকে চট্টগ্রামের বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় খুঁজে ফিরছেন তারা।

 

একটি ফোনালাপের অডিও টেপের মাধ্যমে সাঈদী বিরোধীরা ফেইসবুকসহ ইন্টারনেটের বিভিন্ন ব্লগে প্রচারণা শুরু করার পর থেকে তাদের এ চেষ্টা অব্যাহত আছে।

আল্লামা এবং হযরত মাওলানা উপাধীধারী জনাব দেলোয়ার হোসেন সাঈদী মূলত চরিত্রহীন ও লম্পট ব্যক্তি বলে ধারণা থেকেই ময়নাকে খুজে বের করার চেষ্টা চলে।  টেলিফোন আলাপের সূত্র ধরে প্রমাণ করার চেষ্টাও হয়েছে। অজ্ঞাত পরিচয় বিবাহিতা চট্টগ্রামবাসি কম বয়সী এক মহিলার সঙ্গে তার অবৈধ সম্পর্কের অভিযোগ ওঠে।

এই প্রেম  শুধু মাত্কের আলাপ চারিতায় সীমাবদ্ধ নয়, তাদের মধ্যে বিকৃত যৌন সম্পর্কও রয়েছে বলে আলেচনায় আসে। কারণ কোন মহিলাকে খাবার টেবিলে বিবস্ত্র হয়ে শুয়ে পুরুষ সঙ্গীকে দৈহিক মিলনের প্রস্তাব বিকৃত যৌনাকার ছাড়া আর কিছুই নয় এমনটি প্রচার ও প্রমাণের চেষ্টাও হয়েছে।

এদিকে সাইবার যুদ্ধে জনাব সাঈদীর ভক্তবৃন্দ অসংখ্য পোষ্ট এবং লেখনির মাধ্যমে প্রমাণ করার চেষ্টা করেছেন যে, কথিত ফোনালাপের অডিও টেপটি ভুয়া। তাদের হুজুর আল্লামা সাঈদী এই কাজ কিছুতেই করতে পারেন না। আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে যে কোন ব্যক্তির কন্ঠস্বর সুপার ইমপোজ করে এই ধরনের অডিও ক্লিপ বানানো সম্ভব। ব্লগার বা সাঈদী সাহেবের চরিত্রে কলঙ্ক লেপন করার জন্য এই অপচেষ্টা চালাচ্ছেন।

জাগরণ মঞ্চের ব্লগার ও জামাত শিবিরের ব্লগারদের পরস্পর বিরোধী সাইবার যুদ্ধে বিষয়টি শেষ মেষ একটি জায়গায় এসে স্তব্ধ হয়ে যায়। এদিকে জনাব সাঈদীর বিরুদ্ধে মৃত্যুদন্ড ঘোষণার পর সারাদেশে ব্যাপক বিক্ষোভ, হত্যাকান্ড এবং সর্বপরি চাঁদে সাঈদীর মুখচ্ছবি দেখা গিয়েছে  এই ধরনের তথ্য প্রচারের মাধ্যমে তাকে অতি মানব বা মহামানব বানানোর চেষ্টা করে তার সমর্থকবৃন্দ। এরই জবাবে গণজাগরণ মঞ্চের ব্লগাররা সাঈদীর ফনোটেপের আসল নায়িকাকে খুঁজে বের করার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

সূত্র জানিয়েছেন, ব্লগারদের একটি টিম এখন চট্টগ্রামে অবস্থান করছে মাওলানা সাঈদীর কথিত ময়না পাখির সন্ধানে। ওই টিমের একজন জানিয়েছেন তারা অনেকটাই নিশ্চিত হয়েছেন কোন এলাকায় ওই নারী অবস্থান করেন।

তাদের দাবি মতে, যে সেল ফোন থেকে এই কথোপকথন রেকর্ড করা হয়েছে তার অবস্থান ইতোমধ্যে তাদের জানা হয়ে গেছে। এখন শুধু বিষয়টির প্রমাণ নিয়েই তারা এব্যাপারে বিস্তারিত জানাবেন দেশবাসীকে।

ঢাকা জার্নাল, এপ্রিল ২, ২০১৩

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *



এই পাতার আরো খবর -

জার্নাল