June 23, 2017, 7:54 pm | ২৩শে জুন, ২০১৭ ইং,শুক্রবার, সন্ধ্যা ৭:৫৪

টর্নেডোয় ক্ষতিগ্রস্তরা এখনো খোলা আকাশের নিচে

ashrafmahmud_1335624379_11-tornado2ঢাকা জার্নাল: ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় শুক্রবার বিকেলে বিধ্বংসী টর্নেডোর পর সেখানে পুনর্বাসন কর্মকাণ্ড চলছে বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসন।

এই টর্নেডোতে প্রায় ১৬০ কোটি টাকার মতো ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে অনুমান করা হচ্ছে। এখন পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা বেড়ে এখন অন্তত ২৯ জনে দাঁড়িয়েছে।

শুক্রবার বিকেলে বিধ্বংসী টর্নেডোর আঘাতের শিকার ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিভিন্ন গ্রামের শত শত ঘরবাড়ি হারা মানুষ দু রাত খোলা আকাশের নিচে পার করেছেন।

কেউ সামিয়ানা টাঙ্গিয়ে আবার কেউবা যা যোগার করা গেছে তা দিয়েই নিজের বিধ্বস্ত ভিটে বাড়িতে মাথা গোজার ঠাই করেছেন।

টর্নেডো হয়ে যাওয়ার পর তৃতীয় দিনে এসে জেলার সদর উপজেলার চান্দিগ্রামের বাসিন্দা মমতাজ বেগম বলছিলেন পরিবার নিয়ে খুব কষ্টে আছেন তিনি।

তিনি বলেন, “এতো বড় সংসারে ৪-৫টা ছেলেমেয়ে। বড় ছেলেটা বোবা। বাড়িতে এখন আর কিছুই নেই। সব শেষ হয়ে গেছে। খোলা আকাশের নীচেই আমরা আছি”

তিনি দু:খ করে বলেন, “খাওয়ার পানি নেই, ল্যাট্রিন নাই ছাত্ররা গ্রামবাসীরা যে যা পারছে তা দিয়ে সাহায্য করছে। কিন্তু সরকারের কাছে থেকে কোন সাহায্য পাই নি। দুই মাস পর ফসল ওঠার কথা ছিল। এখন তো আর কিছুই রইলো না?”

তিনি বলেছেন, সরকারী সাহায্য ছাড়া সেখানকার অনেক মানুষের পক্ষে ঘুরে দাঁড়ানো সম্ভব হবেনা।

সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, “ গ্রামগুলোতে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষ এখনো সরকারী ত্রাণ  পায়নি। আর পুনর্বাসন বা পুনর্নির্মাণের কাজে তেমন কোন কার্যক্রম চোখে পড়ে না।”

তবে ক্ষতিগ্রস্তরা সরকারী ত্রাণ পাননি এমন অভিযোগ মানতে রাজী নন জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আজাদ ছাল্লাল।

আজাদ ছাল্লাল বলেন তিনি নিজে চান্দিগ্রাম সহ ক্ষতিগ্রস্ত বেশ কিছু এলাকায় পুনর্বাসন কাজ চালান।

ছাল্লাল জানান, “ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় স্থানীয় চেয়ারম্যান, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, জনপ্রতিনিধি, গণ্যমান্য ব্যক্তিরা তালিকা প্রণয়ন করেছে। এভাবে তাদের সাহায্য করা হয়েছে। চাল দেয়া হয়ে গেছে। আর পুনর্বাসন চলতে থাকবে। এখন পর্যন্ত তাঁবু ৩০০ পেয়েছি, তার মধ্যে নব্বইটি দিয়ে দেয়া হয়েছে”

ছাল্লাল আরও জানান জেলার টর্নেডো বিধ্বস্ত বিভিন্ন স্থানে সেনাবাহিনীর মেডিকেল টিম চিকিৎসা সেবা শুরু করেছে।

এছাড়াও নিরাপত্তা ও উদ্ধার কাজে সহায়তার জন্য বিজিবির মোট নয়টি পেট্রোল টিম পাঠানো হয়েছে।

এদিকে আগামীকাল ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে যাবার কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *



এই পাতার আরো খবর -

জার্নাল