June 27, 2017, 9:31 am | ২৭শে জুন, ২০১৭ ইং,মঙ্গলবার, সকাল ৯:৩১

‘তুমি যে গিয়াছ বকুল বিছন পথে’

jillur-bg20130321122015ঢাকা জার্নাল: বকুল ছাঁয়াতলে শেষ বিশ্রামের জায়গা হল প্রয়াত প্রয়াত রাষ্ট্রপতি মো. জিল্লুর রহমানের। আর আগেই বকুল বিছানো সেই ছাঁয়াতলে বিশ্রাম নিচ্ছেন প্রয়াত আইভি রহমান। যেন এক অমর কমিতা।

প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান তার প্রিয়তমা স্ত্রী আইভি রহমানের কবরেই বকুল ছাঁয়াতলে বিশ্রাম নেবেন। বলতেই হয় কবির ভাষায় প্রয়াত রাষ্ট্রপতি যেন বলছেন ‘তুমি যে গিয়াছ বকুল বিছানো পথে’। সেই পথেই জিল্লুর রহমারে শেষ যাত্রা।

প্রয়াত রাষ্ট্রপতি মো. জিল্লুর রহমানকে বুকে ধারণ করতে প্রস্তুত বনানী কবরস্থানের ১৪৯৩/৮৩ নম্বর কবরটি।

কবরের মাথার কাছে একটি নারিকেল গাছ। আর পায়ের কাছে বকুল ফুলের সেই গাছটি। চারপাশে মার্বেল পাথরের মোজাইক।

২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহত স্ত্রী আইভি বিশ্রামে আছেন এখানেই।

রাষ্ট্রপতির দাফন অনুষ্ঠান পরিচালনা করবেন ঢাকা সেনানিবাস কেন্দ্রীয় মসজিদের খতিব আলহাজ মাওলানা মাহমুদুল হক।

বিকেল ৩টায় রাষ্ট্রপতির মরদেহ বনানী কবরস্থানে আসবে। এরপর তাকে রাষ্ট্রীয় সম্মানে স্যালুট জানানো হবে তাকে। পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যদায় এবং সামরিক কায়দায় ২১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে সম্মান জানানো হবে। ওই সময় পাঁচ মিনিটের জন্য তার সংক্ষিপ্ত জীবনী।

সামরিক আনুষ্ঠানিকতা ও দাফন শেষে অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি অ্যাডভোকেট আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং রাষ্ট্রীয় অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা পুষ্পস্তক দিয়ে শেষ শ্রদ্ধা জানাবেন কবরে। এরপর দোয়া অনুষ্ঠান।

রাষ্ট্রপতির কবরটি খনন করেন জাহাঙ্গীর আলম সরকার। তিনি কবরটির তত্ত্বাবধায়ক হিসেবে দায়িত্ব রয়েছেন। আইভি রহমানের কবরটির কেয়ারটেকারও ছিলেন তিনি।

জাহাঙ্গীর আলম সরকার বনানী কবরস্থানে প্রায় ২০ বছর ধরে চাকরি করেন। তার গ্রামের বাড়ি চাঁদপুরের মতলবে।

আইভি রহমানের দাফনের পর ২০০৪ সাল থেকে তিনি তার কবরের তত্ত্বাবধায়ক হিসেবে নিয়োগ পান। এরপর আর কবর খনন করেননি তিনি। এবার স্থানীয় সরকার প্রতিমন্ত্রী জাহাঙ্গীর কবির নানকের কাছ থেকে নির্দেশ পেয়ে তিনি বৃহস্পতিবার রাতে কবরটি খনন করেন।

ঢাকা জার্নাল, মার্চ ২২, ২০১৩

 

 

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *



এই পাতার আরো খবর -

জার্নাল