June 27, 2017, 9:29 am | ২৭শে জুন, ২০১৭ ইং,মঙ্গলবার, সকাল ৯:২৯

ফেসবুক বন্ধ করা হয়নি, দাবি বিটিআরসি’র

unnamedঢাকা জার্নাল: বৃহস্পতিবার ফেসবুকে প্রবেশ করতে গিয়ে সমস্যায় পড়েন ব্যবহারকারীরা৷ গুজব ছড়িয়ে পড়ে, সরকার ফেসবুক বন্ধ করে দিয়েছে৷ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি অবশ্য এই গুজব উড়িয়ে দিয়ে দাবি করেছে কারিগরী সমস্যার কারণে এটা হয়েছে৷

যুদ্ধাপরাধীদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে এখন উত্তপ্ত বাংলাদেশ৷ গত পাঁচ ফেব্রুয়ারি ব্লগারদের এ সংক্রান্ত আহ্বানে রাজপথে নামে সাধারণ জনতা৷ শাহবাগের প্রজন্ম চত্বরে এখনো হাজারো জনতার ভিড়, তাদের মূল দাবি, ‘যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসি চাই৷’ তাদের এই আন্দোলনকে এগিয়ে নিতে সহায়তা করছে ফেসবুক, ব্লগ৷

একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীকে বৃহস্পতিবার ফাঁসির আদেশ দিয়েছে ঢাকার আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল৷ এই রায় প্রদানের আগে ইন্টারনেটে অনেকে জানাতে থাকেন বাংলাদেশ থেকে ফেসবুকে প্রবেশ করতে অসুবিধা হচ্ছে তাদের৷ একটি ইংরেজি জাতীয় দৈনিকও ফেসবুক বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বলে জানায়৷

এ বিষয়ে অনেক ফেসবুক ব্যবহারকারীরা জানিয়েছেন বিভিন্ন মত। অধিকাংশই জানিয়েছেন, স্বাভাবিকভাবে বিশেষ করে কম্পিউটার ব্যবহার করে ফেসবুকে প্রবেশ করতে পারছেন না তারা৷ কয়েকজন পাঠক লিখেছেন, মোবাইল ফোন থেকে ফেসবুকে প্রবেশ করা যাচ্ছে৷ আর অল্প কিছু পাঠক, কোন সমস্যা ছাড়াই ফেসবুকে প্রবেশ করতে পারার কথা লিখেছেন৷

বিষয়টি নিয়ে যোগাযোগ করা হয় টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসির সঙ্গে৷ সংস্থাটির ভাইস চেয়ারম্যান গিয়াসউদ্দিন আহমেদ  বলেন, ‘‘সরকার ফেসবুক বন্ধ করেনি৷ তবে কারিগরী সমস্যার কারণে বাংলাদেশ থেকে কিছুক্ষণ ফেসবুকে প্রবেশ করা যায়নি৷”

কী ধরনের কারিগরী সমস্যার কারণে ফেসবুকে প্রবেশ করা যায়নি? এই প্রশ্নের উত্তরে আহমেদ বলেন, ‘‘সম্ভবত সাবমেরিন কেবলে সমস্যা হয়েছিল৷ এই সমস্যা এখন আর নেই৷ ফেসবুকে প্রবেশে কোন বাধা নেই৷”

তবে তথ্য প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ জাকারিয়া স্বপন বিটিআরসির এই বক্তব্যের বিরোধীতা করেছেন৷  তিনি বলেন, ‘‘সাবমেরিন কেবলে সমস্যার কারণে শুধু ফেসবুক বন্ধ হওয়া মোটেও সম্ভব নয়৷ যেটা হয়েছে, তাহচ্ছে তারা (বিটিআরসি) কিছুক্ষণের জন্য ফেসবুক বন্ধ করে দিয়েছিল এবং পুনরায় আবারো চালু করেছে৷ কয়েকটি আইএসপির সঙ্গে কথা বলে আমরা এটা জেনেছি৷ সকাল এগারোটা থেকে মোটামুটি বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত ফেসবুক বন্ধ ছিল৷’’

উল্লেখ্য, গত বছর ধর্মীয় অবমাননাকর ভিডিও ধারনের দায়ে বাংলাদেশে ইউটিউব বন্ধ করে দেয় বিটিআরসি৷ এছাড়া সাম্প্রতিক সময়ে একাধিক ফেসবুক পাতা এবং ওয়েবসাইটও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে একই ধরনের অভিযোগে৷

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *



এই পাতার আরো খবর -

জার্নাল