June 23, 2017, 2:38 am | ২২শে জুন, ২০১৭ ইং,শুক্রবার, রাত ২:৩৮

পাড়া-মহল্লায় জঙ্গিদের তালিকা তৈরী শুরু

পাড়া-মহল্লায় জঙ্গিদের তালিকা তৈরী শুরু
ছবি : ফাইল ফটো

ঢাকা জার্নাল: স্থানীয় প্রশাসনের তৈরী করা প্রতিরোধ কমিটি ছাড়াও বিভিন্ন পর্যায় থেকে দেশব্যাপী জামায়াত-শিবিরের জঙ্গিদের তালিকা করা হচ্ছে।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে স্থানীয় প্রশাসনের এ প্রতিরোধ কমিটি তালিকা তৈরী করতে শুরু করেছে।

আর এ কাজে সহায়তা করছেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী, স্থানীয় সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতারা-কর্মীরা।

এছাড়া পুলিশ এবং গোয়েন্দা সংস্থাগুলোও নতুন করে তৈরী করছে জঙ্গি তালিকা।

জামায়াতের জঙ্গি তৎপরতা জোদারের পর মন্ত্রিপরিষদ ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় স্থানীয় প্রশাসনকে জামায়াত-শিবিরের জঙ্গি তৎপরতা রোধে প্রতিরোধ কমিটি গঠনের নির্দেশ দেয়।

এই নির্দেশের পর সারা দেশেই জেলা প্রশাসন ও উপজেলা প্রশাসন স্থানীয় পর্যায়ে কমিটি গঠন শুরু করে।

দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গোয়েন্দাসংস্থাগুলো আগে থেকেই শুরু করে জঙ্গি তালিকা তৈরীর কাজ।

এদিকে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা গত ৭ মার্চ সন্ত্রাস প্রতিরোধ কমিটি গঠনের কথা বলেন। ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উপলক্ষে আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি বলেন, “আমি ক্যাবিনেট সচিবকে বলে দিয়েছি ডিসিদের দিয়ে এলাকায় এলাকায় সন্ত্রাস প্রতিরোধ কমিটি গঠন করাতে।”

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “প্রশাসনের পাশাপাশি রাজনৈতিক নেতাকর্মীরও দায়িত্ব রয়েছে। যারা সন্ত্রাস করছে তাদের তালিকা তৈরি করতে হবে।”

প্রধানমন্ত্রীর এই নির্দেশের পর সন্ত্রাস প্রতিরোধ কমিটি গঠনের কাজ শুরু হয়েছে বলে সরকার ও আওয়ামী লীগের সূত্রে জানা গেছে।

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে পর মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে স্থানীয় প্রশাসনকে প্রতিরোধ কমিটি গঠনের নির্দেশ দেয়।

তবে আওয়ামী লীগ থেকে এ বিষয়ে অফিসিয়াল কোনো নির্দেশ পাঠানো হয়নি।

আওয়ামী লীগের একাধিক নেতার কাছে এ বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে তারা বাংলানিউজকে বলেন, “দলের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজেই যখন নির্দেশ দিয়েছেন তখন নতুন করে আর পার্টির নির্দেশনার তো দরকার নেই।”

আওয়ামী লীগ নেতারা বলেন, “কমিটি গঠনের কাজ চলছে। কমিটি গঠনের পরই কার্যক্রম শুরু হবে। যে সব জায়গায় কমিটি হয়েছে সে সব জায়গায় কাজ শুরু হয়েছে।”

নেতারা জানান, এই কার্যক্রমে আওয়ামী লীগের স্থানীয় নেতাকর্মীরা প্রশাসনকে সহযোগিতা করবে।

তবে এ ব্যপারে তারা প্রকাশ্যে কিছু বলতে চাচ্ছেন না।

এদিকে, এই সন্ত্রাস প্রতিরোধ কমিটি স্থানীয় পর্যায়ে জামায়াত-শিবিরসহ যারা সহিংস তৎপরতা চালিয়েছে এবং এ ধরণের ঘটনা ঘটানোর চেষ্টা করে তাদের চিহ্নিত করে তালিকা করে তাদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবন্থা নেয়া হবে।

এ বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে মেহেরপুর জেলা প্রশাসক দেলওয়ার হোসেন বাংলানিউজকে বলেন, “মন্ত্রিপরিষদ ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী প্রতিরোধ কমিটি গঠন করা হয়েছে। সন্ত্রাস প্রতিরোধ জেলা কমিটি গঠন করা হয়েছে ৫৯ সদস্য বিশিষ্ট।

রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লুৎফর রহমান জানান, ২০ সদস্যের প্রতিরোধ কমিটি গঠন করা হয়েছে।

জঙ্গি চিহ্নিত করতে ওই কমিটি তালিকা তৈরীর কাজ করছে কী না- জানতে চাইলে তিনি বলেন, নির্দেশনা অনুযায়ী কাজ করা হচ্ছে।

রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগ সদস্য ও দুর্গাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি নজরুল ইসলাম বাংলানিউজকে জানান, সর্বস্তরের জনগণকে সঙ্গে নিয়ে জামায়ত-শিবিরের সহিংসতা ঠেকাতে স্থানীয় প্রশাসনের মাধ্যমে মঙ্গলবার প্রতিরোধ কমিটি গঠন করা হয়েছে।

এই কমিটি উপজেলা কমিটির পক্ষ থেকে তালিকা তৈরী করে তা জেলা প্রশাসনে মাধ্যমে সরকারের কাছে পাঠানো হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১০১৪ ঘণ্টা মার্চ ১৩, ২০১৩

লিখেছেন শামীম খান ও এস এম আববাস, সূত্র বাংলানিউজ।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *



এই পাতার আরো খবর -

জার্নাল