June 27, 2017, 9:29 am | ২৭শে জুন, ২০১৭ ইং,মঙ্গলবার, সকাল ৯:২৯

ইরানের সহায়তা চাইল যুক্তরাষ্ট্র!

FBI-sm20130309091044জার্নাল ঢাকা: বিতর্কিত পারমাণবিক কর্মসূচির জন্য ইরানকে এক ঘরে রাখার চেষ্টাকারী যুক্তরাষ্ট্র সেই ইরানের সহায়তা চেয়েছে। ফেডারেল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (এফবিআই) অবসরপ্রাপ্ত নিখোঁজ এক সদস্যের অবস্থান জানতে এ সহায়তা চেয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

শনিবার আল-আরাবিয়া এক প্রতিবেদনে এ খবর প্রকাশ করেছে।

প্রতিবেদনটিতে উল্লেখ করা হয়, ছয় বছর আগে ইরান সফরের সময় নিখোঁজ হয় এফবিআইয়ের সাবেক সদস্য রবার্ট লেভিনসন। শনিবার ছিল তার নিখোঁজ হওয়ার দিবস। 

দিবসটি উপলক্ষে হোয়াইট হাউজের মুখপাত্র জে কার্নি জানান, লেবিনসনকে খুঁজে বের করা ও দেশে ফেরত আনার বিষয়টি এখনও ওয়াশিংটনের অগ্রাধিকারে রয়েছে।

তিনি বলেন, “লেভিনসনের অবস্থান জানাতে সহায়তা করার প্রস্তাব দিয়েছিল ইরানের সরকার। আমরা সেই সহায়তার জন্য মুখিয়ে আছি যদিও আমাদের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ ইস্যুগুলো নিয়ে মতভেদ রয়েছে।”

তিনি বলেন, “লেভিনসনকে নিরাপদে ফেরত আনতে তথ্যদাতাকে ১০ লাখ মার্কিন ডলার পুরস্কার দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে এফবিআই। এই বছর, আমরা আবারও তাকে তার পরিবারের সদস্যদের কাছে ফেরত আনার প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করছি।” গত বছর এ পুরস্কারের ঘোষণা দেয় এফবিআই।
শুক্রবার লেভিনসনের পরিবারের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন জন কেরি। লেভিনসনের অবস্থান সম্পর্কে কারও কাছে কোনো তথ্য থাকলে সহায়তা করার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

তিনি বলেন, “আমি আজকে লেভিনসনের স্ত্রী ও তার ছেলের সঙ্গে সাক্ষা করেছি লেভিনসনকে খুঁজতে এবং তাকে তার পরিবারকে নিরাপদে ফেরতে দিতে যুক্তরাষ্ট্র সরকার বদ্ধপরিকর তা পুনর্ব্যক্ত করার জন্য।

ইরানের সরকার আগে জানিয়েছিল, লেভিনসনের অবস্থান সম্পর্কে তাদের কাছে কোনো তথ্য নেই।

৩০ বছর এফবিআইয়ে কাজ করা লেভিনসনের নিখোঁজ হওয়ার বিষয়টি ইরান ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে আরেকটি উত্তেজনার সৃষ্টি করেছে। তেহরানের পরমাণু কর্মসূচি, মানবাধিকারসহ বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে ইসলামি প্রজাতান্ত্রিক ‍রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে নাখোশ যুক্তরাষ্ট্র।

ইরানের কিশ উপসাগরীয় দ্বীপ থেকে নিখোঁজ হন লেভিনসন। জানা গেছে, তিনি ওই অঞ্চলে সিগারেট নকল করার বিষয়টি তদন্ত করছিলেন। সংবাদ সংস্থা রয়টার্সের মতে, ওই এলাকার কোথাও তাকে জিম্মি রাখা হয়েছে।

২০০৭ সালের ৮ মার্চ স্ত্রী ক্রিস্টিনের সঙ্গে সর্বশেষ কথা হয়েছিল তার। গত জানুয়ারিতে ক্রিস্টিন তার স্বামীর একটি ছবি প্রকাশ করে। ছবিটিতে দেখা যায়, কিউবায় যুক্তরাষ্ট্র পরিচালিত গুয়ানতানামো বে বন্দিশালার কয়েদিদের পরানো কমলা রংয়ের পোশাকের মতো পোশাক পরহিত ছিল লেভিনসন। দুই হাত শিকল দিয়ে বাঁধা। হাতে ধরে রাখা একটি সাদা প্ল্যাকার্ড, তাতে লেখা ছিল-‘কেন আপনারা আমাকে সহায়তা করবেন না’।

বাংলাদেশ সময়: ২১৪৩ ঘণ্টা, মার্চ ০৯, ২০১৩

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *



এই পাতার আরো খবর -

জার্নাল